আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

কালারমার ছড়া বাজারে হঠাত্ সশস্ত্র সন্ত্রাসী দলের হানা, যুবককে কুপিয়ে চলে যায় - মহেশখালীর সব খবর

কালারমার ছড়া বাজারে হঠাত্ সশস্ত্র সন্ত্রাসী দলের হানা, যুবককে কুপিয়ে চলে যায়


রকিয়ত উল্লাহ,
কালারমার ছড়া থেকে।।  

কালারমার ছড়া বাজারে হঠাত্ করে একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী হানা দিয়ে এক যুবককে ব্যপক কুপিয়ে জখম করে নিরাপদে সটকে পড়েছে। এ ঘটনার পর এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়েছে। রাতে কালামার ছড়া বাজার এলাকায় পুলিশের উপস্থিতি বাড়ানো হয়েছে। 

হামলার শিকার ফকিরজুম পাড়ার মৃত জাবের আহমদের পুত্র তারেক(২৫) অবস্থা গুরুতর। তাকে জরুরি চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে জানাগেছে।

সূত্র জানায় -আজ শনিবার সন্ধ্যায় এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও পূর্ব শত্রুতার জের ধরে স্থানীয় ওকিল আহমদের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী অতর্কিতে বাজার এলাকে এসে তাকে এলোপাথাড়ি ভাবে কুপিয়ে যখম করে চলে যায়। পরে মুমূর্ষু অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চকরিয়া জমজম হাসপাতালে নিয়ে যায়, অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে জরুরি চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। 

স্থানীয়সূত্রে  জানা যায়, বিগত সময় দুই পক্ষের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রশিদ নামে একজন খুন হয়। ওই খুনের ঘটনার জের ধরেই এ হামলার ঘটনা ঘটে বলে জানান এলাকাবাসী।  

স্থানীয় দোকানদার জাহাঙ্গীর আলম জানান, বাজারে প্রকাশ্যে এমন ঘটনা সংঘঠিত হওয়ায় বাজারের ব্যবসায়ীরা আতংকিত রয়েছে। এখানে পুলিশ ক্যাম্প না থাকায় বাজারে সন্ত্রাসীরা এসে হামলা চালাতে সক্ষম হয়েছে। এখানে পুলিশ ক্যাম্প খুবই জরুরি বলে মনে করেন তিনি। 

আহতের ভাই সাইমুল ইসলাম বলেন, মৃত রশিদ আহমদের পূত্র ওকিল আহমদের নেতৃত্বে তার ৪ ভাই সহ কিছু ভাড়েটে সন্ত্রাসীরা মিলে কুপিয়ে হত্যা করার জন্য মারাত্মক ভাবে আঘাত করে অস্ত্রের মহড়া চালিয়ে নিরাপদে চলে যায়।

এবিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ জানান, সন্ধ্যার দিকে ৮-৯ জনের একদল সন্ত্রাসী এসে কুপিয়ে যাওয়ার খবর পাই। বিষয়টি তাৎক্ষণিক ভাবে প্রশাসনকে অবগত করা হয়েছে। 

এবিষেয় মহেশখালী থানার ওসি আব্দুল হাই বলেন, বিষয়টি জানার পর ওই এলাকায় পুলিশের উপস্থিতি বাড়ানো হয়েছে। এ নিয়ে এখনও কোনও অভিযোগ পাই নি।

No comments

Powered by Blogger.