আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

কালারমার ছড়ায় গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু - মহেশখালীর সব খবর

কালারমার ছড়ায় গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু


রকিয়ত উল্লাহ।। 
মহেশখালীর কালারমার ছড়ার ঝাপুয়া এলাকায় তামান্না জান্নাত(২০) এক গৃহবধূর বিষপানে রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।

আজ শুক্রবার (১৬ জুলাই) সকাল ৯ টার দিকে এঘটনা ঘটে। নিহত গৃহবধূ ঝাপুয়া এলাকার মো. ফরহাদের স্ত্রী। তিনি চকরিয়া উপজেলার বদরখালী ইউনিয়নের সাইড ডেইল এলাকার ফরিদুল আলমের মেয়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পারিবারিক কলহের জেরে তামান্নার শ্বশুর বাড়িতে তাদের মনমালিন্য চলে আসছিল দীর্ঘদিন ধরে। এর জন্য আলাদা হয়ে গত ৩ মাস যাবত বাপের বাড়িতে ছিলেন এ নারী। স্থানীয় সাবেক মেম্বার রশিদ ও বদরখালীর মেম্বার তারেকুল ইসলামের মধ্যস্থায় সমঝোতা করে গত ৫ দিন আগে বদরখালীর পিতার বাড়ি থেকে শ্বশুর বাড়িতে নিয়ে আসা হয় এ নারীকে । গত রাতে তার শ্বশুর বাড়ির লোকজনের সাথে কথা কাটাকাটি হয় কিন্তু আজ সকালে রহস্যজনক ভাবে বিষপান করলে প্রথমে বদরখালী জেনারেল হাসপাতালে পরে চকরিয়া হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানেই তার মৃত্যু হয় বলে জানান।  

এদিকে উভয় পরিবারের পাল্টা পাল্টি বক্তব্য মৃত্যু নিয়ে রহস্য সৃষ্টি হয়েছে। এলাকাবাসীরা মনে করেন এটা হত্যা নাকি আত্মহত্যা  তা তদন্ত করে বের করা জরুরি।

এদিকে নিহত গৃহবধূ তামান্নার মা হাসিনা বেগম দাবি করেন, তারে মেয়েকে শ্বশুর বাড়ীর লোকজন কর্তৃক শারিরিক নির্যাতন করে মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে খুন করা হয়। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবী করেন তিনি।

অন্যদিকে তার শ্বশুর আমির হোসেন দাবি করেন - পানের বরজের জন্য আনা বিষ পান করে এ নারী। পরে তারা বিষয়টি সাথে সাথে তার বাপের বাড়িতে জানায় এবং হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানেই তার মৃত্যু হয়। তিনি বলেন -যদি আমরা দুষী হলে তদন্তের মাধ্যমেই বের হবে।

এদিকে ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে কালারমার ছড়ার ইউপি চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ বলেন, এটা হত্যা কিনা আত্মহত্যা তা বের করার জন্য পুলিশকে খবর দিয়েছি, তারা এসেই তদন্ত করলে মূল তথ্য বের হয়ে আসবে।

মহেশখালী থানার ওসি আব্দুল হাই বলেন, বিষপান এক গৃহবধূর মৃত্যু খবর পাওয়া গেলে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। তদন্ত করেই আত্মহত্যা নাকি হত্যা তা বের করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

No comments

Powered by Blogger.