আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

মাতারবাড়িতে গভীর রাতে সন্ত্রাসী কায়দায় মাছের প্রজেক্ট হামলা: আহত ১ - মহেশখালীর সব খবর

মাতারবাড়িতে গভীর রাতে সন্ত্রাসী কায়দায় মাছের প্রজেক্ট হামলা: আহত ১


বার্ত পরিবেশক।।
মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ির মিয়াজি পাড়ার নুরু বর পুকুরপাড় সংলগ্ন ফারুকের মাছের প্রজেক্টে গভীর রাতে হামলা চালিয়ে মাছের প্রজেক্টের মালিক ফারুকে গুরুতর আঘাত করে পালিয়েছে এলাকার কিছু চিহ্নিত বখাটেরা।


স্থানীসূত্রে জানায়ায়, গত ০৬ সেপ্টেম্বর রাত আনুমানিক দেড় টায় একই এলাকার মৃত আবু ছৈয়দের পূত্র রিফাতের নেতৃত্বে একদল বখাটে এ হামলা চালিয়েছে । স্থানীয় প্রত্যক্ষদশী মোস্তাক আহমদ জানান রাত ১০ টার সময় রিয়াদ ও আশেক নামে স্থানীয় দুইজন কিশোর মাছের প্রজেক্টে গাঁজা সেবন করে অহেতুক ঘুরাঘুরি করলে প্রজেক্টের মালিক তাদের চলে যেতে বললে তাদের সাথে একপ্রকার কথা কাটা-কাটি হয়। এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে রিয়াদ তার ভাই রিফাতকে মোবাইল ফোনে বললে রিফাত তার দুইভাই মুরাদ নিশাদ সহ স্থানীয় আলা উদ্দীন,ফারুক, ফয়সাল সহ আরো কয়েকজন দলবল নিয়ে রাত দেড়টার সময় প্রজেক্টের মালিক ফারুককে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে মারাত্মক ভাবে হামালা চালিয়ে প্রজেক্ট ফেলে পালিয়ে যায়। তিনি আরও জানান  হামলা থামাতে এগিয়ে গেলে  তাকেও লাথি-কিল ঘুষি মেরে আহত করে।  পরে স্থানীয় মানিক,ওয়ালিদ সহ কয়েকজন এসে আহত ফারুকে উদ্ধার করে চকরিয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে কক্সবাজার সদর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে কক্সবাজার সদর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। 

এবিষয়ে আহত ফারুকের শালা মিজানুর রহমান জানান, এলাকার কিছু চিহ্নিত বখেটারা গাঁজা-খেয়ে মাছের প্রজেক্ট গিয়ে সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা চালিয়েছে।এতে ফারুক মারাত্মক ভাবে আহত হয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। আমরা তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

এবিষয়ে মহেশখালী থানার ওসি দিদারুল ফেরদৌসের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান এ রকম বিষয় এখনো কারও কাছে শুনে নি। তবে কেউ  লিখিত অভিযোগ করলে তদন্ত সাপেক্ষা আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান।

No comments

Powered by Blogger.