আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

কালারমার ছড়ায় নিরীহ জমিমালিকের কান্না..! দেখার কেউ নেই? - মহেশখালীর সব খবর

কালারমার ছড়ায় নিরীহ জমিমালিকের কান্না..! দেখার কেউ নেই?


আ.ন.ম হাসান।।
মহেশখালীর কালারমার ছড়ার বাসিন্দা মোহাম্মদ শফি আলমের ওয়ারিশ সূত্রে প্রাপ্ত হোয়ানক মৌজার সম্পত্তি অবৈধ ভাবে দখলের জন্য  নিরীহ চাষি পরিবারের উপর ধারাবাহিক ভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী চক্র । প্রভাবশালীদের অব্যাহত হুমকি ও জমি দখলের অপচেষ্টার করণে পরিবারটি বেশ নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছে । এ অবস্থায় তারা দ্রুত প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ।

পরিবারটির লিখিত অভিযোগ ও সরজমিন পরিদর্শনে জানাগেছে -কালারমার ছড়া ইউনিয়নের স্থানীয় বাসিন্দা জনৈক মোহাম্মদ শফিউল আলম ও তার ভাইয়েরা  মা নুরজাহান বেগমের ওয়ারিশ সূত্র ও ক্রয় করা বেশকিছু জমি স্থানীয় পুইছড়া এলাকার চিহ্নিত ভূমিদস্যু একাধিক মামলার বিভিন্ন আসামী তথা ছৈয়দ আহমদ, আবু তাহের প্রকাশ তছি মিয়া, আমির হাছেন, আবু জাফর, আবুল কাশেম, আবু তালেব, আবু বক্কর, আবু ছৈয়দ,  নেছার,  মোস্তাক আহমদ, ইসহাক আহমদ, মোহাম্মদ আমিন,  মোহাম্মদ কামাল, আব্দুল মালেক, আব্দুল খালেক প্রকাশ কালু ডাকাত, ফেরদৌস, নুরুল আবছার, সাইফুল ইসলাম প্রকাশ সাইফুল ডাকাত, শাহ জাহান গংদের প্রভাবশালী চক্রটি অবৈধ ভাবে দখল করে রেখেছে ।
 
মোহাম্মদ শফিউল আলম ও তার লোকজন বিভিন্ন ভাবে অবৈধ দখলে থাকা নিজেদের এ সব জমি উদ্ধার করতে চেয়েও প্রভাবশালীদের দৌরাত্ম্যর কারণে নিজেদের জমি অবৈধ দখলদারদের কাছ থেকে উদ্ধার করতে পারছে না । পরিবারটির এমন লিখিত দাবির প্রেক্ষিতে সম্প্রতি সরজমিন ওই এলাকা পরিদর্শনে গেলে তার প্রতিপক্ষের দাপুটে আচরণের সাক্ষাত প্রমাণ পাওয়া যায় ।

পরিদর্শনে স্থানীয় একাধিক নিরপেক্ষ সূত্র ও সরেজমিনে উপস্থিত স্থানীয় এলাকার বাসিন্দা আবু বক্কর, ফরিদ আলম, বজল আহমদ, চান্দু মিয়া প্রমুখ জানিয়েছে -প্রভাবশালীদের ধারাবাহিক হুমকি ও বাঁধার মুখে দলিলপত্রমূলে জমির প্রকৃত মালিক মোহাম্মদ শফিউল আলমরা তাদের নিজ জমিতে প্রবেশ করতে পারছে না। প্রতিপক্ষের লোকজন স্থানীয় ভাবে ও রাজনৈতিক ছত্রছায়ার দিক থেকে প্রভাবশালী হওয়ায় জমির মূল মালিকরা এ নিয়ে কোথাও ন্যায় বিচার পাচ্ছেনা । এ নিয়ে প্রশাসনসহ বিভিন্নজনের দ্বারে দ্বারে ঘুরলেও কার্যতঃ কোনো প্রতিকার পাচ্ছে না তারা ।

স্থানীয়রা জানান -প্রতিপক্ষের লোকজন প্রভাবশালী হওয়ায় বিভিন্ন সময় উল্টো মোহাম্মদ শফিউল আলম এর পরিবারকে মামলা হামলা করে হয়রানী করা হয়। এ অবস্থায় জমির বৈধ মালিকরা বেশ কোণঠাসা অবস্থায় আছে। স্থানীয় লোকজন -প্রভাবশালী কর্তৃক নিরীহ এ সব লোকজনের উপর কি রকম জুলুম করা হচ্ছে তার সাক্ষাত নমুনা তুলে বলেন "এলাকার অসংখ্য মানুষ ও আপনাদের সামনেইতো মোহাম্মদ শফিউল আলমকে বার বার মারতে এলো, এখন ভাবুন -তারা কী রকম অসহায় অবস্থায় আছে।"

জানাগেছে -এ চক্রটির সাথে স্থানীয় অপর কিছু প্রভাবশালীর সখ্যতা রয়েছে। এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে নিরীহ লোকজনের প্রতি এমন অবিচার করা হচ্ছে। -দাবি নিরপেক্ষ সূত্রের।

এদিকে প্রভাবশালী কর্তৃক জমি দখল ও ধারাবাহিক হুমকির বিবরণ দিতে গিয়ে জমি মালিক মোহাম্মদ শফিউল আলম বার বার কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তিনি এ নিয়ে দ্রুত প্রশাসন ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।


No comments

Powered by Blogger.