-->
মহেশখালীতে করোনাকালে অবাদে চলছে কোচিং সেন্টার

মহেশখালীতে করোনাকালে অবাদে চলছে কোচিং সেন্টার


সংবাদদাতা প্রেরিত।। প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে তাদের নাকের ডগায় চলছে কোচিং সেন্টার। করোনা তান্ডবে যেখানে সকল ধরণের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ, সেখানে মহেশখালী কলেজের আইসিটি শিক্ষক আবু ছরওয়ার রানার কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টারে চলছে কোচিং বাণিজ্য।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মহেশখালী আদালত সড়কের সামনে একটি বাড়ির নীচতলা ভাড়া নিয়ে কলেজ শিক্ষক রানাসহ কয়েকজন যৌথভাবে গড়ে তুলেছেন একটি কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টার। কলেজে শিক্ষার্থীদের আইসিটি বিষয়ের শিক্ষক হওয়ার সুবাধে প্রাইভেট পড়তে নানা ভাবে শিক্ষার্থীদের চাপ প্রয়োগ তিনি করেন বলে বিভিন্ন শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন। যার কারনে বাধ্য হয়ে শিক্ষার্থীরা প্রাইভেট পড়েন সেখানে।

এই বিষয়ে জানতে কলেজ শিক্ষক রানার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান- তিনি এ সেন্টারের ট্রেইনার নন। তিনি ওই ট্রেনিং সেন্টারের উদ্যোক্তা। করোনাকালীন ট্রেনিং করানোর তথা কোটিং সেন্টার খোলা রাখার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি প্রশ্নটি এডিয়ে যান এবং তাদের ট্রেনিং সেন্টারে  তার সাথে দেখা করতে বলে ফোন কেটে দেন। পরে ওই সেন্টারে গিয়ে তার বক্তব্য নেওয়ার চেষ্টা করা হলে তিনি উত্তর না দিয়ে এ সব বিষয়ে সংবাদ না করার পরামর্শ দেন এবং উপস্থিত সাংবাদিকদের টাকা নেওয়ার প্রস্তাব দেন।

এই বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহফুজুর রহমান বলেন -করোনাকালীন কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নিয়ম রয়েছে ৷ এমনটি হয়ে থাকলে -তা অনিয়ম। অভিযোগের বিষয়ে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শিরোনাম ছিলো.. "মহেশখালীতে করোনাকালে অবাদে চলছে কোচিং সেন্টার"

Post a Comment

Iklan Atas Artikel

Iklan Tengah Artikel 1

Iklan Tengah Artikel 2

Iklan Bawah Artikel