আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

৩৫তম বিসিএসে দ্বিতীয় দফায় মৌখিক পরীক্ষা শুরু ৬ মার্চ - মহেশখালীর সব খবর

⬤ আমাদের নতুন ওয়েবসাইটে স্বাগতম। ⬤ আমাদের ওয়েবসাইট www.moheshkhalirsobkhabor.com ⬤ ফেসবুক ফেইজ www.facebook.com/m.sobkhabor ⬤ ইউটিউব চ্যানেল www.YouTube.com/Sobkhabor24x7 ⬤ ফেসবুক গ্রুপ www.facebook.com/groups/m.sobkhabor ⬤

৩৫তম বিসিএসে দ্বিতীয় দফায় মৌখিক পরীক্ষা শুরু ৬ মার্চ


৩৫তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মধ্যে দ্বিতীয় দফায় মৌখিক পরীক্ষার সময়সূচি ঘোষণা করেছে সরকারি কর্মকমিশন (পিএসসি)।

আগামী ৬ মার্চ থেকে সাধারণ ও কারিগরি/পেশাগত ক্যাডারের প্রার্থীদের নিয়ে দ্বিতীয় দফায় মৌখিক পরীক্ষা শুরু হবে। ৩১ জানুয়ারি থেকে ৩ মার্চ প্রথম দফায় প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

৬ মার্চ সকাল ১০টায় আগারগাঁওয়ে পিএসসি’র প্রধান কার্যালয়ে মৌখিক পরীক্ষা শুরু হবে বলে বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) কমিশনের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক দফতর জানিয়েছে।

পিএসসি’র পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) আ ই ম নেছার উদ্দিন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, আগামী ২১ মার্চ পর্যন্ত প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা চলবে।

প্রার্থীদের তালিকা পিএসসি’র ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। তাদের নির্ধারিত তারিখে উপস্থিত হতে হবে।

মৌখিক পরীক্ষার জন্য সাক্ষাৎকারপত্র কমিশনের ওয়েবসাইট (www.bpsc.gov.bd) থেকে ডাউনলোড এবং এ সংক্রান্ত বিপিএসসি ফরম-৩ অনলাইনে ওয়েবসাইটে (http:/bpsc.teletalk.com.bd) পূরণ করে ডাউনলোড করে নিতে হবে।

গত ১৩ জানুয়ারি ৩৫তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ করে পিএসসি, যাতে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৬ হাজার ৮৮ জন। 

লিখিত পরীক্ষায় সাধারণ ক্যাডারে ৩ হাজার ২২৮ জন, সাধারণ এবং কারিগরি/পেশাগত ক্যাডারে ১ হাজার ৮৬১ জন, কারিগরি/পেশাগত ক্যাডারে ৯২৬ জন উত্তীর্ণ হন।

গত বছরের ১ সেপ্টেম্বর থেকে ৩৫তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা শুরু হয়, শেষ হয় ১০ অক্টোবর।

সর্বোচ্চ দুই লাখ ৪৪ হাজার ১০৭ জন প্রার্থী নিয়ে গত বছরের ৬ মার্চ ৩৫তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

বিসিএস বিধিমালা সংশোধনের পর নতুন নিয়ম ও সিলেবাসে ২০০ নম্বরে দুই ঘণ্টার প্রিলিমিনারি পরীক্ষা নেওয়া হয়। প্রতিটি শুদ্ধ উত্তরের জন্য ছিল এক নম্বর। আর ভুল উত্তরের জন্য শূন্য দশমিক ৫০ নম্বর কাটা হয়। আগে ১০০ নম্বরে এক ঘণ্টা প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতো।

ওই বছরের ৮ এপ্রিল প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করে পিএসসি, যাতে উত্তীর্ণ হন ২০ হাজার ৩৯১ জন। তারা লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেন। 

বিভিন্ন ক্যাডারে এক হাজার ৮০৩ জন প্রার্থী নিতে ২০১৪ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি। এর মধ্যে সাধারণ ক্যাডারে ৪৫৫ জন, প্রফেশনাল/টেকনিক্যাল ক্যাডারে ৪৮৪ জন, সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারে ৮২৯ জন, বিশেষায়িত শিক্ষা ক্যাডারে ৩৫ জনকে নিয়োগ দেওয়ার কথা।
Powered by Blogger.