মহেশখালী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে কক্সবাজার থেকে প্রকাশিত দৈনিক কক্সবাজার ৭১ পত্রিকার বিরুদ্ধে এক নারী ইউপি সদস্যের দায়ের করা মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন দিয়েছে পুলিশ। পত্রিকাটির ৩ কর্মকর্তাকে অব্যহতি দিয়ে মহেশখালী সংবাদদাতা রমজান আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়াগেছে বলে উল্লেখ করে গতকাল ৬ ডিসেম্বর মহেশখালী থানা পুলিশের পক্ষ থেকে এই প্রতিবেদন দাখিল করা হয়। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে রমজান আলীর বিরুদ্ধে সমন জারি করেছে। 
প্রতিবেদনে বলা হয় আদালতের আদেশের আলোকে মহেশখালী থানার ওসি(তদ) নাজমুল আহসান কামাল তদন্তভার গ্রহণ করে ছোট মহেশখালীর ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে তদন্ত কাজ পরিচালনা করেন। এসময় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জাহেদ বিন আলীসহ বিভিন্ন সাক্ষির সাথে কথা বলেন তদন্ত কর্মকর্তা। প্রতিবেদনে পত্রিকাটির সম্পাদক শাহাব উদ্দিন, প্রকাশক মো: বেলাল উদ্দিন ও সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি ফজলুল কাদের চৌধুরীর বিরুদ্ধে মামলার ঘটনার সাথে জড়িত থাকার বিষয়ে সাক্ষ্য প্রমাণ পাওয়া যায়নি বলে উল্লেখ করা হয়। তবে একাধিক ব্যক্তির সাক্ষ্য প্রমাণে মামলার অন্যতম বিবাদী পত্রিকাটির মহেশখালী সংবাদদাতা রমজান আলী মিথ্যা সংবাদ ছাপিয়ে বাদীর মানহানি করার বিষয়ে সত্যতা পাওয়া যায়। ফলে দন্ড বিধির সংশ্লিষ্ট ধারায় তার বিরুদ্ধে অপরাধ প্রাথমিক ভাবে সত্য বলে প্রতিয়মান হয় মর্মে পুলিশের এই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। গতকাল প্রতিবেদনটি আদালতে দাখিল হয়। প্রতিবেদনে তদন্তকালে পত্রিকায় প্রকাশিত খবরের সত্যতা পাওয়া যায়নি বলে উল্লেখ করা হয়। এসময় বাদী পক্ষের আইনজীবী পত্রিকার ৩ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ না থাকায় তাদের অব্যহতির জন্য আদালতে আবেদন করেন। প্রসঙ্গত: গত ১৪ নভেম্বর মহেশখালীর বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ৪ জনকে বিবাদী করে মামলাটি দায়ের করেন ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের নারী মেম্বার খুরশিদা খানম এই মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় বলা হয় গত ২২ অক্টোবর ছোট মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদ এর সামনে টি.সি.বি কার্ড বিতরণের সময় বাদী বিভিন্ন অংকের টাকা নিয়েছে মর্মে পত্রিকায় মিথ্যা খবর প্রকাশ করা হয়। এতে বাদীর মানহানি হয়েছে। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে মহেশখালী থানাকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য বলেন। 

বাদী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন মহেশখালী বারের সিনিয়র আইনজীবী আবু তালেব। তিনি উপরুক্ত বিবরণ দিয়ে বলেন আদালত প্রতিবেদনটি গ্রহণ করে আগামী ১১ জানুয়ারি মামলার আসামিকে আদালতে হাজির হওয়ার জন্য নির্দেশ দেন। 

ঘটনার অনুসন্ধান ও আদালতে প্রতিবেদন পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেন মহেশখালী থানার ওসি বাবুল চন্দ্র বনিক। 


Share To:

Sobkhabor24x7

Post A Comment: