Header Ads

মহেশখালীর নিবেদিত দুই শিক্ষাগুরুর প্রস্থান ::

এম বশির উল্লাহ, জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মহেশখালী উপজেলার উচ্চ শিক্ষার অন্যতম প্রতিষ্ঠান মহেশখালী কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ জসিম উদ্দিন ও সহকারী অধ্যাপক দীপক কান্তি ভট্টচার্য্য'র অবসরজনিত বিদায় সম্বর্ধণা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। মহেশখালী কলেজের আয়োজনে ২৭ জুলাই সকালে কলেজ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য ও মহেশখালী কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক।

কলেজের সহকারী অধ্যাপক ও বিদায় সম্বর্ধণা কমিটির আহ্বায়ক রহমত উল্লাহ ভূঁইয়া'র সভাপতিত্বে এবং সহকারী অধ্যাপক আহমদ কবির'র সঞ্চালনায় এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য ও মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আনোয়ার পাশা চৌধুরী, মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ দিদারুল ফেরদৌস, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এম, আজিজুর রহমান বিএ, সাবেক মেয়র ও মহেশখালী কলেজ পরিচালনা কমিটির সদস্য সরওয়ার আজম বিএ, সাবেক চেয়ারম্যান ও মহেশখালী কলেজ পরিচালনা কমিটির সদস্য আলহাজ্ব শামসুল আলম, ইসলামী ব্যাংক মহেশখালী শাখার ব্যবস্থাপক আতিকুল্লাহ ইসলামাবাদি, মহেশখালী কলেজ পরিচালনা কমিটির সদস্য যথাক্রমে মোহাম্মদ ছিদ্দিক নুরী, জসিম উদ্দিন কোম্পানি, আলতাফ হোসেন, আবদুর রহিম বাদশা ও শাহজাহান সিরাজ লিটন, হোয়ানক কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ সরওয়ার কামাল, মহেশখালী কলেজের সহকারী অধ্যাপক পৃথ্বিরাজ সাহা।

প্রধান অতিথি'র বক্তব্যে সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিক বলেন, মহেশখালীকে উচ্চ শিক্ষায় আলোকিত করতে ১৯৮৫ সালে মহেশখালী কলেজে প্রতিষ্ঠাতা শিক্ষক হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন সেই দিনের টগবগে যুবক আজকের বিদায়ী অধ্যক্ষ মোঃ জসিম উদ্দিন ও অধ্যাপক দীপক কান্তি ভট্টচার্য্য। মহেশখালী কলেজের জন্য তারা নিজের জীবন যৌবনের স্বর্ণালী দিন গুলো এখানেই কাটিয়েছেন। বিশেষ করে অধ্যক্ষ জসিম সাহেব'র নাম বলতেই হয়। তিনি মহেশখালী কলেজের অবকাঠামো সহ সার্বিক উন্নয়নের জন্য যথেষ্ট পরিশ্রম করেছেন। তার সুদক্ষ পরিচালনায় মহেশখালী কলেজ অনেকদূর এগিয়ে গেছে। মহেশখালী কলেজটি প্রতিষ্ঠিত করতে তিনি শুরুতে বিনা বেতনে চাকুরী করেছেন। তার এই অবদান অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে।

No comments

Powered by Blogger.