আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

হোয়ানকে নির্যাতিত মাদ্রাসা ছাত্রীর পরিবারকে অব্যাহত হুমকি - মহেশখালীর সব খবর

⬤ আমাদের নতুন ওয়েবসাইটে স্বাগতম। ⬤ আমাদের ওয়েবসাইট www.moheshkhalirsobkhabor.com ⬤ ফেসবুক ফেইজ www.facebook.com/m.sobkhabor ⬤ ইউটিউব চ্যানেল www.YouTube.com/Sobkhabor24x7 ⬤ ফেসবুক গ্রুপ www.facebook.com/groups/m.sobkhabor ⬤

হোয়ানকে নির্যাতিত মাদ্রাসা ছাত্রীর পরিবারকে অব্যাহত হুমকি

বার্তা পরিবেশক।। উপজেলার হোয়ানক রাজুয়ারঘোনা এলাকায় এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় মামলা করার দায়ে ওই ছাত্রীর পরিবারের উপর নানা নির্যাতন ও হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মামলা নামিয়ে ফেলার জন্য পরিবারটির উপর অব্যাহত ছাপ দেওয়া হচ্ছে বলেও সূত্রের অভিযোগ। এ নিয়ে প্রতিকার চেয়ে ওই ছাত্রীর পিতা গোলাম সোলতান সম্প্রতি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছে। ওই ডায়েরি করার পর পরিবারটির উপর হুমকির মাত্রা আরও বেড়েছে। পরিবারটি বর্তমানে চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছে বলে জানাগেছে। 

সূত্রের লিখিত অভিযোগ থেকে জানাযায় -গত ১১ জানুয়ারি ওই এলাকার গোলাম সোলতান এর ১৫ বছর বয়সী মাদ্রাসা পড়ুয়া মেয়ে( সঙ্গত কারণে নাম গোপন করা হল ) রাতে প্রকৃতিগত কার বাড়ি থেকে বের হলে একই এলাকার আবদুল জলিল এর বখাটে পুত্র মোঃ ছলিম উল্লাহ ওই কিশোর মেয়েটিকে চরম ভাবে যৌন নিপীড়ন করে। এ সময় মেয়েটিকে পশুর মত কামড়িয়ে গুরুতর আহত করা হয়। এ নিয়ে মেয়েটির পিতা গোলাম সোলতান বাদি হয়ে মহেশখালী থানায় ওই বখাটেকে একমাত্র আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। যার মামলা নং ১৯ তাং ২৭,০১,২০২০ । এদিকে মামলা হওয়ার পর থেকে ওই নির্যাতিত ছাত্রীর পরিবারের উপর অত্যাচারের মাত্রা বেড়ে যায়। মামলার আসামি পক্ষ এলাকার প্রভাবশালী ও সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক হওয়ায় এবং নির্যাতিত ছাত্রীর পরিবার অন্য এলাকা থেকে গিয়ে এখানে বসতি করায় নির্যাতনকারী চক্রের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না। 

এদিকে নির্যাতিত কিশোরীর পিতাকে বার বার মামলা নামিয়ে ফেলার জন্য হুমকি ও চাপ দিয়ে আসছে এ চক্রটি। কতিপয় প্রভাবশালীর সাথে তাদের যোগসূত্রতা থাকায় তারা ক্রমশ বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বলে সূত্রের অভিযোগ। 

এরই ধারাবাহিকতায় গত ২ অক্টোবর মামলার বাদি গোলাম সোলতান ফজরের নামাজ পড়ার জন্য বাড়ি থেকে মসজিদে যাওয়ার জন্য বের হলে ওই বখাটে যুবকের পিতা আবদুল জলিল, মা আমেনা খাতুন ও ভাই নছর উল্লাহ স্থানীয় ফরিদের দোকানের সামনে অতর্কিতে মামলার বাদি গোলাম সোলতান এর উপর আক্রমণ করে। এসময় তাকে নানা ভাবে গালিগালাজ করে মামলা প্রত্যাহার করে নেওয়ার জন্য হুমকি দিতে থাকে। এ নিয়ে তিনি মহেশখালী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। ডায়েরি নং ১৩৮। থানায় জিডি করার পর বর্তমানে তারা আরও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বলে সূত্রের অভিযোগ। যেকোনো সময় তারা কিশোরী ও তার পরিবারের ক্ষতি করতে পার বলে আশংকা করা হচ্ছে। এ নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছে পরিবারটি। তারা দ্রুত প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।  

No comments

Powered by Blogger.