আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

সাগরে মহেশখালীর ট্রলারে ডাকাতি - মহেশখালীর সব খবর

সাগরে মহেশখালীর ট্রলারে ডাকাতি


আবুল বশর পারভেজ।।
বঙ্গোপসাগরের গুলিধারের ৬ বিয়া নামকস্থানে ১টি ফিশিং ট্রলার ডাকাতির কবলে পড়েছে। ডাকাতি কবলে পড়া ফিশিং বোটটি মহেশখালী উপজেলার কুতুবজোম ইউনিয়নের ঘটিভাঙ্গা গ্রামের শের আলীর পুত্র মোঃ ফারুক এর মালিকানাধীন এফ.বি মায়ের দোয়া। ঘটনাটি ঘটেছে ২৭ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টায়। 

৩ দিন সাগরে ডাকাতের কবলে পড়ে ইঞ্জিন বিকলে পড়া এফ.বি মায়ের দোয়া ফিশিং বোটটি ১লা অক্টোবর ঘটিভাঙ্গার ঘাটে পৌছে নোঙ্গর করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। গুলির ধার নামকস্থানে ডাকাতিকালে এফ.বি মায়ের দোয়া ফিশিং বোটের জেলেরা তাদেরকে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত ফিশিং ট্রলার এফ.বি ফাহিম এর ছবি ধারণ করে। এ সময় ডাকাতিকাজে ব্যবহৃত এফ.বি ফাহিম নামের ফিশিং ট্রলারের গায়ে লিখা একটি নাম্বার ১০৬৮৯ পায় তারা। 

ডাকাতদল এফ.বি মায়ের দোয়া ফিশিং ট্রলারটি গুলির ধারে মাছ ধরারত অবস্থা থেকে ২০/২৫ জনের ১টি ফিশিং বোট হঠাৎ তাদের গতিরোধ করে বোটে মাঝি-মাল্লাদের মারধর করে ৪ লক্ষ টাকা মূল্যের মাছ ও ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা মূল্যের জাল ও আসবাবপত্র নিয়ে ইঞ্জিন বিকল করে দিয়ে দ্রুত গতিতে পালিয়ে যায়। 

এদিকে ১লা অক্টোবর সাগর থেকে কূলে পৌছে এফ.বি মায়ের দোয়ার মালিক ফারুক বাদী হয়ে এফ.বি ফাহিম নামের ফিশিং ট্রলারের বিরুদ্ধে মহেশখালী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগটি মহেশখালী থানা এসআই মফিজকে তদন্তের দায়িত্ব দিয়েছেন মহেশখালী থানার নবাগত ওসি আব্দুল হাই।

No comments

Powered by Blogger.