আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

পুলিশকে বিশ্বাস করুন কালারমার ছড়ার মানুষ দরজা খোলা রেখে ঘুমাতে পারবেন- এএসপি জাহেদুল

সর্বশেষ

Type Here to Get Search Results !

পুলিশকে বিশ্বাস করুন কালারমার ছড়ার মানুষ দরজা খোলা রেখে ঘুমাতে পারবেন- এএসপি জাহেদুল

0


এম বশির উল্লাহ।।

আপনারা পুলিশকে ভালোবাসা দিন। তারপর দেখুন আমরা তার প্রতিদান কিভাবে দিই। আপনারা অন্তত মাত্র ২৫ ভাগ ভালবাসুন আমাদের, বিনিময়ে মহেশখালীবাসীকে শতভাগ ফেরত দিবো আমরা। পুলিশ জনতা, জনতাই পুলিশ। সাধারণ মানুষ পুলিশ থেকে দূরে থাকলে পুলিশ মানুষের সাথে মিলেমিশে কাজ করতে পারবেনা। সাধারণ মানুষকে সর্বোচ্চ পুলিশী সেবা দিতে মহেশখালী থানা পুলিশ বদ্ধ পরিকর। ঠিক তেমনি দুষ্টুদের দমনে পুলিশ তার সর্বোচ্চ শক্তি ব্যবহার করবে আর দালালদের থানা থেকে বয়কট করা হবে। পুলিশ কে বিশ্বাস করুন এই কালারছড়ার মানুষ দরজা খোরা রেখে ঘুমাতে পারবেন। কমিউনিটি সচেতনতায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দানকালে এএসপি (সার্কেল) জাহেদুল ইসলাম এ কথা বলেন।

১৪ নভেম্বর বিকেল ৩টায় কালারমারছড়া ইউনিয়ন পরিষদ হলরুমে ইউপি চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফের সভাপত্বিত্বে অনুষ্ঠিত হয় কমিউনিটি পুলিশের সভা।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য দিতে গিয়ে মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ আবদুল হাই বলেন- “কক্সবাজার জেলায় বর্তমানে পুলিশের কনস্টেবল থেকে শুরু করে পুলিশ সুপার পর্যন্ত সকলেই বদলী হয়ে সম্পূর্ণ নতুন পুলিশ যোগদান করেছেন। আমি সেবার মনমানসিকতা নিয়ে মহেশখালীতে নিজের সর্বোচ্চটা দিয়ে যাবো।

অপরদিকে কালারমারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ বলেন- “দুরত্বের কারণে মহেশখালীর উত্তর প্রান্তে আরো একটি থানার প্রয়োজনীয়তা বেড়েছে। থানার কার্যক্রম স্থাপনের জন্য ইতিমধ্যে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান হোসাইন মুহাম্মদ ইব্রাহীম জমি দান করেছেন। অপরদিকে কালারমারছড়ার সকল মানুষ শান্তি চায়। শান্তি পেতে হলে প্রতিটি পাড়ায়, সমাজে, প্রতিটি ঘরে অপকর্মের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলুন। পুলিশকে সঠিক তথ্য দিয়ে সমাজ পরিবর্তনে ভূমিকা রাখুন। তবেই কালারমারছড়া শান্ত হবে নিশ্চিত।”

উক্ত অনুষ্ঠানে এসময় আরো বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক মুহাম্মদ রুহুল আমিন, মাষ্টার বশির আহমদ, জেলা বৌদ্ধ সমিতির সাধারণ সম্পাদক জেএমসেন বড়–য়া, কালারমারছড়া বাজার কমিটির সভাপতি হাজী রশিদ আহমদ, কালারমারছড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা বদরুল আলম আনসারী, আবুল কাশেম মেম্বার, সৈকত কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ বিহারের সুমন প্রিয় ভিক্ষু, নোনাছড়ি বাজার কমিটির সভাপতি মনজুরুল আলম, শরীফ মেম্বার প্রমুখ।

এসময় কালারমারছড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার প্রায় হাজারো জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন।

Post a Comment

0 Comments

বিজ্ঞাপন দিন