-->
মহেশখালীতে পুলিশ অন্যায় করলে আমাকে খবর দিন -এসপি

মহেশখালীতে পুলিশ অন্যায় করলে আমাকে খবর দিন -এসপি

থানার সেবাকে বিকেন্দ্রীকরণ ও পুলিশি সেবা জনমুখি করতেই বিট পুলিশিং কার্যক্রম -এসপি হাসানুজ্জামান

কমিনিটি ক্লিনিকের মতো পুলিশি সেবাকে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে কাজ করছে এ বাহিনী-এমপি আশেক

মহেশখালীতে বিট পুলিশিং কার্যক্রম সংক্রান্ত এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

মাহবুব রোকন।। 

বিট পুলিশিং বাড়ি বাড়ি, নিরাপদ সমাজ গড়ি -এ স্লোগানকে ধারণ করে মহেশখালীতে বিট পুলিশিং কার্যক্রম সংক্রান্ত এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মহেশখালী থানার আয়োজনে অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক এমপি। প্রধান বক্তা ছিলেন কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান। সমাবেশে বিট পুলিশিং এর বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়। সভার প্রধান অতিথি কক্সবাজার-২ আসনের এমপি আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক বলেছেন কমিউনিটি ক্লিনিকের মতো পুলিশি সেবাকে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে কাজ করছে পুলিশ বাহিনী। প্রধান বক্তার বক্তব্যে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান বলেন -থানার সেবাকে বিকেন্দ্রীকরণ ও পুলিশি সেবা জনমুখি করতেই বিট পুলিশিং কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে।  

জানাগেছে,গতকাল দুপুরের পর মহেশখালী পৌর সদরের ঘোনাপাড়াস্ত অহনা কনভেনশন হলে মহেশখালী থানার অফিসার ইন-চার্জ(ওসি) আব্দুল হাই এর সভাপতিত্বে ও মহেশখালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ আশিক ইকবাল এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, প্রধান বক্তা ছিলেন কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান। বিশেষ অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যথাক্রমে মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহফুজুর রহমান, মহেশখালী ও কুতুবদিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার জাহেদুল ইসলাম, মহেশখালী পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মকছুদ মিয়া, মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আনোয়ার পাশা চৌধুরী, কমিউনিটি পুলিশিং মহেশখালীর সভাপতি ও কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এম. আজিজুর রহমান, মহেশখালী কলেজের অধ্যক্ষ আহমদ কবির, মহেশখালী প্রেস ক্লাব সভাপতি আবুল বশর পারভেজ, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ছালেহ আহমদ,  মহেশখালী উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী মাশরাফা জান্নাত, শাপলাপুরের ইউপি চেয়ারম্যান এড. আব্দুল খালেক, গোরকঘাটা মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা আব্দুল গফুর প্রমুখ। সভায় মহেশখালীর বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগণ, পৌরসভার কাউন্সিলার, বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য, নারী সদস্য, মহেশখালীর বিভিন্ন দপ্তরের প্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সমাজের বিভিন্ন স্তরের প্রতিনিধি, সাংবাদিকগণ ও বিভিন্ন নারী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। 

এমপি আশেক বলেন

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক বলেন -বর্তমানে মহেশখালী থানা সমগ্র এলাকাজুড়ে একটি ক্লিন ইমেজের পুলিশিং শুরু হয়েছে। মানুষ এতে উপকার পাচ্ছে। কমিনিটি ক্লিনিকের মতো পুলিশি সেবাকে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে কাজ করছে পুলিশ বাহিনী। বিট পুলিশিং এর মাধ্যমে পুলিশ ঘরে ঘরে গিয়ে সেবা দিবে। এটি বর্তমান সরকারের পুলিশ বাহিনীর একটি গুরুত্বপূর্ণ জনমুখি পদক্ষেপ। এ বিট পুলিশিং কার্যক্রমের ফলে সামাজিক বিশৃঙ্খলা বহুলাংশেই কমে আসবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। 

এসপি যা বললেন

প্রধান বক্তার বক্তব্যে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান পিপিএম বলেন -মানুষকে সহযোগিতা করতে পুলিশ সদা প্রস্তুত রয়েছে। মানুষের দোরগোড়ায় পুলিশি সেবা পৌঁছিয়ে দেওয়ার জন্যই এই বিট পুলিশিং কার্যক্রমের শুরু হয়েছে। তিনি কমিউনিটি পুলিশিং ও বিট পুলিশিই দু’টিই মানুষের জন্য পুলিশি সেবা সম্প্রসারিত করার ধারণা। তবে কাজের মৌলিকত্বের জায়গায় দুইটি আলাদা কনসেপ্ট হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বিট পুলিশিং এর ধারণা স্পষ্ট করেন। তিনি বলেন কমিউনিটি পুলিশিং এর বেলায় এলাকার লোকজনকে সাথে নিয়ে, লোকজননের সহায়তায় কাজ করে পুলিশ। আর বিট পুলিশিং হচ্ছে -পুলিশ মানুষের দোরগোড়ায় গিয়ে সেবা দিবে। সেবা দেওয়ার জন্য পুলিশ প্রয়োজনে মানুষের বাড়ি বাড়ি যাবে। পুলিশ এখন অনেক পরিবর্তন হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন কোন পুলিশ অপরাধের সাথে জড়িয়ে পড়লে পুলিশকে ছাড় দেওয়া হবেনা। পুলিশের মাধ্যমে কেউ হয়রানীর শিকার হলে সরাসরি তাকে জানানোর অনুরোধ করেন। 

মহেশখালীতে ১১ বিট 

এদিকে কক্সবাজার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের ওয়েবসাইট সূত্রে জানাগেছে -বিট পুলিশিং কার্যক্রম এর আওতায় মহেশখালীকে মোট ১১টি বিটে ভাগ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে এ সব বিটে কর্মকর্তাদের দায়িত্বও দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি ইউনিয়নে একটি ও পৌরসভায় তিনটি বিট করা হয়েছে। মাতারবাড়ি বিট এ ইন-চার্জ এর দায়িত্বে রয়েছেন এসআই মোঃ শাহজাহান, ধলঘাট বিট এসআই মালমগীর হোসেন, কালামার ছড়া বিট এসআই মোঃ রুহুল আমিন, শাপলাপুর বিট এসআই রাজীব বড়ুয়া, হোয়ানক বিট এসআই একেএম নুরুল হক, বড় মহেশখালী বিট এসআই মোঃ বোরহান উদ্দিন, ছোট মহেশখালী বিট এসআই মোঃ গোলাম মোস্তফা ও কুতুবজোম বিটে দায়িত্বে আছেন এসআই মোঃ আনিছ উদ্দিন। মহেশখালী পৌরসভায় ১,২,৩ নম্বর ওয়ার্ডে এসআই গাজী মোঃ মোরশেদ আলম, ৪.৫,৬ নং ওয়ার্ড এসআই খোকন চন্দ্র দাশ এবং ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ড ইন-চার্জের দায়িত্বে আছেন এসআই উদয় পাল। 

এ সব বিটে ইন-চার্জ হিসেবে একজন উপ-পরিদর্শক (এসআই) ও সহকারী ইন-চার্জ হিসেবে একজন সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) দায়িত্ব পালন করছেন। প্রতিটি বিটে তাদের সাথে থাকবেন আরও দুইজন কনস্টেবল। এদিকে গতকালের সভা থেকে জানানো হয়েছে প্রতিটি ইউনিয়নে ইউনিয়ন পরিষদের একটি কক্ষে তারা অবস্থান করবেন। 

বিটে এমপির অনুদান

গতকালের সভায় প্রধান অতিথি আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক এমপি মহেশখালীর ১১টি নতুন বিট এর জন্য প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র কিনে দেওয়ার ঘোষণা দেন। 

শিরোনাম ছিলো.. "মহেশখালীতে পুলিশ অন্যায় করলে আমাকে খবর দিন -এসপি"

Post a Comment

Iklan Atas Artikel

Iklan Tengah Artikel 1

Iklan Tengah Artikel 2

Iklan Bawah Artikel