-->
 হোয়ানকে রোহিঙ্গাদের বৈধ করার চেষ্টা, চেয়ারম্যান মোস্তফার দিকে অভিযোগের আঙুল

হোয়ানকে রোহিঙ্গাদের বৈধ করার চেষ্টা, চেয়ারম্যান মোস্তফার দিকে অভিযোগের আঙুল

মহেশখালী উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তফা কামালের বিরুদ্ধে অভিযোগের অন্ত নেই। সম্প্রতি তিনি নতুন ভাবে সমালোচনার মুখে পড়েছেন এক রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশি হিসেবে বৈধ করতে তিনি উঠেপড়ে লেগেছেন -এ নিয়ে। এ কাজ করার জন্য চেয়ারম্যান মোস্তফা বিশাল অংকের উৎকোচের টাকা গ্রহণ করেছেন বলেও অভিযোগ শোনা যাচ্ছে। 

এর আগেও একাধিক রোহিঙ্গাকে মহেশখালীর ভোটার করিয়ে ও জন্ম-নিবন্ধন করে বিশাল অংকের টাকা ধরে নিয়েছেন বলে বেশ জনশ্রুতি আছে এ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। ইতোমধ্যে রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশী নাগরিক বলে একাধিক প্রত্যায়ন করার অপরাধে প্রশাসন চেয়ারম্যানের সাক্ষর করা কাগজপত্র জব্দ করে এনেছে। বিদেশে অবস্থান করা এক রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশী নাগরিক হিসেবে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য চেয়ারম্যান মোস্তফা প্রশাসনে একের পর এক তদবির করতে গিয়ে চেয়ারম্যানের দুর্নীতির বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসে। তবে এ অবস্থায়ও চেয়ারম্যান দাবি করছে ওই ব্যক্তি রোহিঙ্গা নয়, বাংলাদেশী নাগরিক; তার জন্ম-নিবন্ধন সার্ভারে আছে। সরকারের কর্ম-সৃজন প্রকল্পে পাহাড়সম দুর্নীতিসহ এ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বহু দুর্নীতির খবর আসতে শুরু করেছে।  জেলা প্রশাসনের একটি সূত্র জানিয়েছেন -বিষয়টি তদন্তে প্রমানিত হলে চেয়ারম্যান মোস্তফাকে কঠিন অবস্থার মুখোমুখি হতে হবে। 

[ ফেসবুকে চেয়ারম্যান মোস্তফার হাস্যকর বক্তব্যসহ বিস্তারিত আসছে ] 

শিরোনাম ছিলো.. " হোয়ানকে রোহিঙ্গাদের বৈধ করার চেষ্টা, চেয়ারম্যান মোস্তফার দিকে অভিযোগের আঙুল"

Post a Comment

Iklan Atas Artikel

Iklan Tengah Artikel 1

Iklan Tengah Artikel 2

Iklan Bawah Artikel