-->
মহেশখালীতে পুলিশ পরিচয়ে বাড়িতে ডাকাত স্টাইলে হানা,  ব্যাপক লুট

মহেশখালীতে পুলিশ পরিচয়ে বাড়িতে ডাকাত স্টাইলে হানা, ব্যাপক লুট


কাব্য সৌরভ / রকিয়ত উল্লাহ, ঘটনাস্থল ঘুরে এসে ।। পুলিশ পরিচয়ে রাতের আঁধারে মহেশখালীর একটি বসতবাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতির স্টাইলে ছিনতাই এর ঘটনা ঘটেছে। শাপলাপুর ইউনিয়নের উত্তর ষাইটমারা নামক এলাকায় জনৈক মাহমুদুল করিমের বাড়িতে গত রাতে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনায় জড়িতদের সনাক্ত করতে চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। 

বাড়ির মালিক মাহমুদুল করিম মহেশখালীর সব খবর'কে জানায়, রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে একদল লোক পুলিশ পরিচয়ে বাড়ির গ্রীলের দরজা খুলতে বলেন। বাড়ির দরজা খুলতেই অস্ত্রধারী একদল লোক বাড়িতে ঢুকে মৃত আনু মিয়ার পুত্র মাহমুদুল করিম ও তার স্ত্রী হালিমা বেগমসহ প্রত্যেক রুমের সকলকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত পা বেঁধে এক রুমে বন্দী করে রাখে। রুমে বন্দী করার সময় সকলের মুখে কসটেপ দিয়ে মুখ এঁটে দেওয়া হয় বলে জানান মাহমুদুল করিম।

এসময় মুখোশ পরিহিত ১০-১২ জনের ছিনতাইকারীদল বাড়ির আলমিরা, ওয়ারড্রব, ডেক্স ভেঙে হালিমা বেগমের পুত্রবধূ ও তাঁর মেয়ের গচ্ছিত রাখা ১২ ভরি স্বর্ণ ও নগদ দেড়লক্ষ টাকাসহ গুরুত্বপূর্ণ জিনিসপত্র লুট করে নিয়ে যায়। সব মিলিয়ে লুট ও ক্ষতির পরিমাণ কয়েক লাখ টাকা হবে বলে জানান বাড়ির মালিক। এরা যাওয়ার সময় মামলা না করতে হুমকি দেন বলে জানান মাহমুদুল করিম।

ডাকালদল চলে যাওয়ার পর কান্নার শব্দে ভোর সকালে আশেপাশের লোক এসে জড়ো হয়। পরে স্থানীয় ইউপি সদস্য দিল মোহাম্মদ ঘটনাস্থলে গিয়ে পুরো বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করে মহেশখালী থানাকে অবগত করেন। খবর পেয়ে মহেশখালী সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জাহেদুল ইসলাম ও মহেশখালী থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) আব্দুল হাই এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। কারা এই ঘটনার সাথে জড়িত তাদের সনাক্ত করতে মহেশখালী থানা পুলিশ কাজ করবে এবং শিগগিরই এদেরকে গ্রেফতারের আওতায় আনতে মহেশখালী থানা পুলিশের বিশেষ টিম মাঠে কাজ করবে বলে জানান ওসি। এমন দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনায় এলাকায় বেশ চাঞ্চল্য ও আতংক বিরাজ করছে।

এদিকে প্রায় ঘণ্টাখানেক ওই বাড়িতে তান্ডব চালিয়ে এ দোষকৃত দলটি শাপলাপুরের পথ ধরে চালিয়াতলীর দিকে চলে যায় বলে সূত্র জানায়। এ ঘটনায় এলাকার নারী ইউপি সদস্যা দিলুয়া বেগম দিলু, সাবেক মেম্বার মামুন, বর্তমান মেম্বার  দিল মোহাম্মদ বিষ্ময় প্রকাশ করেছেন। তারা দ্রুত এ ঘটনার প্রতিকার দাবি করেছেন প্রশাসনের কাছে। 

প্রসঙ্গতঃ সম্প্রতি শাপলাপুরে ধারাবাহিক ভাবে অপরাধ প্রবণতা বেড়েছে বলে জানিয়েছে অনেকেই। এ অবস্থার প্রতিকার দরকার বলে মনে করেন তারা। 

শিরোনাম ছিলো.. "মহেশখালীতে পুলিশ পরিচয়ে বাড়িতে ডাকাত স্টাইলে হানা, ব্যাপক লুট"

Post a Comment

Iklan Atas Artikel

Iklan Tengah Artikel 1

Iklan Tengah Artikel 2

Iklan Bawah Artikel