আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

নিষেধাজ্ঞার শেষ সময়ে ব্যস্ত জেলেরা - মহেশখালীর সব খবর

নিষেধাজ্ঞার শেষ সময়ে ব্যস্ত জেলেরা


রকিয়ত উল্লাহ।।
আগামী ২৩ জুলাই শেষ হচ্ছে সাগরে মাছ ধরার সব বিধি নিষেধ। দীর্ঘ ৬৫ দিন সাগরে মাছ ধরার নিষেধাজ্ঞার শেষ সময়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে জেলেরা  । কেউ সাগরে মাছ ধরতে যাওয়ার জন্য ট্রলার মেরামত করতেছে কেউ আবার মাছ ধরার ছিঁড়ে যাওয়া জাল অংশ বুনতেছে। এমনই দৃশ্য দেখা যায় কক্সবাজারের মহেশখালী সংলগ্ন উপকূলীয় অঞ্চল বদরখালী জেটিঘাটে। যেখানে শত শত জেলেরা ঝড়ো হয়ে অর্ধশত ট্রলারে সাগরে মাছ ধরার প্রস্তুতি নিচ্ছে।


 স্থানীয় বদরখালী জেলে মোঃ করিম জানান, অনেক দিন সাগরে মাছ ধরা বন্ধ ছিল অন্যদিকে লকডাউনেও কাজ কাজ করতে না পেরে সংসার চালাতে অনেক কষ্ট হয়েছে। তাই মাছ ধরার আগেই বোটে চলে আসছি। অন্যদিকে কুতুবদিয়ার আলী আকবর ডেইলের জেলে আজিজুল হক জানান, মাছ ধরার বন্ধ সময়ে সরকার থেকে চাল পেয়েছি কিন্তু তা দিয়ে কি আর সংসার চলে?

এদিকে মৎস অফিস সূত্রে জানা যায়, সামুদ্রিক মাছের প্রজনন ও সংরক্ষণের জন্য ২০১৫ সাল থেকে প্রতি বছরের এ সময় সমুদ্রে মাছ ধরা বন্ধ থাকে। এই ৬৫ দিন সব ধরনের ট্রলারের মাধ্যমে মাছ ও ক্রিস্টাশিয়ান্স (চিংড়ি, লবস্টার, কাটলফিস ইত্যাদি) আহরণ নিষিদ্ধ করা হয়। এজন্য নিবন্ধিত জেলেদের কে জেলে কার্ডের মাধ্যমে ত্রাণ দেওয়া হয় বলে জানা যায়।

মহেশখালী উপজেলা সিনিয়র মৎস অফিসার আব্দু রহমান জানান, সামুদ্রিক মাছ প্রজনন ও আহরণ থেকে ৬৫দিন সাগরে মাছ ধরা বন্ধ থাকে। এই সময়ে জেলেদেরকে ত্রাণ সহয়তা দেওয়া হয়। ২৩ জুলাই নিষেধাজ্ঞা শেষ হলেই সাগরে মাছ ধরতে পারবে।

No comments

Powered by Blogger.