আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

নিম্ন আদালতের আদেশ চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে গেলেন পরীমনি - মহেশখালীর সব খবর

নিম্ন আদালতের আদেশ চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে গেলেন পরীমনি


মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় নিম্ন আদালতের দেওয়া গত ২২ আগস্টের আদেশ চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন চেয়েছেন ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা পরীমনি।

বুধবার এই জামিন আবেদনের বিষয়ে বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি কেএম জাহিদ সারওয়ার সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ থেকে অনুমতি নেওয়ার পর সংশ্লিষ্ট শাখায় জামিন আবেদনটি করেন পরীমনির আইনজীবী মুজিবুর রহমান।

পরীমনির এই জামিন আবেদনের এক কপি রাষ্ট্রপক্ষকেও দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী মুজিবুর রহমান।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, গত ২২ আগস্ট ঢাকার মহানগর দায়রা জজ ওই মামলায় পরীমনির জামিন আবেদন শুনানির জন্য ১৩ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেন।  এ আদেশের বৈধতা নিয়ে বুধবার হাইকোর্টের দারস্থ হন পরীমনি।  আবেদনে বিলম্বে জামিন আবেদন শুনানির দিন রাখার যৌক্তিকতা নিয়ে চ্যালেঞ্জ করেছেন পরীমনি। আর্জি জানিয়েছেন জামিনেরও।

এর আগে গত ১৯ আগস্ট পরীমনির জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালত। এ আদেশের বিরুদ্ধে ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতে জামিন আবেদন করেন পরীমনি। সেই আবেদনের শুনানির জন্য আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেন আদালত। এ অবস্থায় বুধবার হাইকোর্টে আবেদন করলেন পরীমনি।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে নিয়োজিত সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মিজানুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, নিম্ন আদালতের দেওয়া গত ২২ আগস্টের আদেশ চ্যালেঞ্জ করে এই আবেদনটি করা হয়েছে। এতে অন্তর্বর্তীকালীন জামিনও চেয়েছেন পরীমনি।

উল্লেখ্য, গত ৪ আগস্ট রাতে ঢাকার বনানীতে পরীমনির বাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরদিন তার বিরুদ্ধে বনানী থানায় মাদক আইনে এ মামলা করা হয়। জব্দ তালিকায় পরীমনির বাসা থেকে ‘মদ এবং আইস ও এলএসডির মতো মাদকদ্রব্য’ উদ্ধারের কথা বলা হয়।

গত ৫ আগস্ট পরীমনিকে প্রথম দফায় চার দিন ও ১০ আগস্ট দ্বিতীয় দফায় দুদিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মামলার তদন্ত সংস্থা সিআইডি। সর্বশেষ গত ১৯ আগস্ট তৃতীয় দফায় পরীমনিকে একদিনের রিমান্ডে নেয় সিআইডি।

No comments

Powered by Blogger.