আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

রাত ১টা ১৫ মিনিটঃ মহেশখালীতে বিদ্যুতের সর্বশেষ তথ্য - মহেশখালীর সব খবর

রাত ১টা ১৫ মিনিটঃ মহেশখালীতে বিদ্যুতের সর্বশেষ তথ্য

 


🔴 ফাইনাল নোট
________________
★ কক্সবাজার দোহাজারি রেল লাইন উন্নয়নের কাজ চলছে। বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ রেখেই এ কাজ করতে হয়।

★ কক্সবাজার পল্লী বিদ্যুৎ অফিস থেকে ইতোমধ্যে একটা ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল, যাতে কয়েক মাস ধরে বিদ্যুৎ বিব্রাট থাকবে বলে জানানো হয়েছিল।

★ মহেশখালী বদরখালী ও চকরিয়া এলাকায় আজ ভোর ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ বন্ধ থাকবে বলে প্রতিটি এলাকায় মাইকিং করা হয়।

★ কিন্ত দীর্ঘ সময় ধরে বিদ্যুৎ চালু না হওয়ায় মানুষ ক্ষুব্দ হয়ে উঠেছে। তারা সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যধ্যম ফেসবুকে এ নিয়ে বেশ ক্ষুব্দতা প্রকাশ করে যাচ্ছেন।

★ মূলতঃ মানুষ ক্ষুব্দ হয়ে উঠেছে নিদৃষ্ট সময় বিদ্যুৎ চালু না হলেও বিদ্যুৎ অফিসের কর্মকর্তারা বিদ্যুৎ চালুর সময় নিয়ে বিভ্রান্তিকর তথ্য দেন। নিদৃষ্ট সময়ে বিদ্যুৎ পাবে বলে আশায় থাকলেও মানুষ বার বার হতাশ হয়েছে।

★ দীর্ঘ সময় ধরে বিদ্যুৎ না থাকার কারণে মানুষের অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে। জরুরি চিকিৎসা থেকে শুরু করে ফ্রিজআপ করা পণ্য নষ্ট হয়ে যাওয়া সহ অসহনীয় গরমে অতিষ্ট হয়ে উঠেছে মানুষ।
####
সর্বশেষ তথ্যঃ রাত ১টা ১৫ মিনিট 

 
🔴 এদিকে একটু আগে পল্লী বিদ্যুতের পক্ষ থেকে মহেশখালীর সব খবরকে সর্বশেষ আপডেট জানানো হয়েছে।

★ তারা জানান -মূলতঃ ৩৩ হাজার বোল্টেজের বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন -যা কিনা চট্টগ্রাম থেকে চকরিয়া ও বদরখালী হয়ে মহেশখালী ঢুকেছে -সেই সঞ্চালন লাইনের চকরিয়ার পালাকাটা এলাকায় একটি বড় ধরণের জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে।

★ পালাকাটার ওই জায়গায় বর্তমানে সংযোগ উন্নয়নের কাজ করছে বিদ্যুৎ বিভাগের প্রকৌশলীরা।

★ সেখান থেকে তারা মহেশখালীর সব খবরকে জানিয়েছেন -সন্ধ্যা ৬টার দিকে বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু করার কথা থাকলেও উন্নয়ন কাজে ব্যবহৃত একটি ভারি যন্ত্র হঠাৎ বিকল হয়ে পড়ে।

★ বিদ্যুৎ সংযোগ চালু করতে হলে ওই যন্ত্রটির ব্যবহার প্রয়োজন। বেশ চেষ্টা চালিয়েও যন্ত্রটি চালু করা সম্ভব হয়নি এবং যার ফলে বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু করা যাচ্ছে না।

★ কক্সবাজার পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের কর্মকর্তারা আমাদের জানিয়েছেন - পল্লী বিদ্যুতের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মধ্যে চট্টগ্রামের এসি, কক্সবাজারের জিএম, মহেশখালীর সাবেক ডিজিএম, চকরিয়ার ডিজিএমসহ কর্মকর্তারা একটি উচ্চমান কারিগরি টিম নিয়ে ঘটনাস্থলে এসে সংযোগ পুঃস্থাপনের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

★ তবে ঠিক কখন বিদ্যুৎ বিতরণ শুরু করা যাবে তা নিশ্চিত ভাবে বলতে পারছে না তারা। রাতের মধ্যেই বিদ্যুৎ সংযোগ চালু করার আপ্রাণ চেষ্ট চলছে বলে জানান কর্মকর্তারা। 

★ তবে বিকল্প উপায়ে দ্রুত সময়ে কিছু ফিডারে বিদ্যুৎ চালু করার চেষ্টা চলছে বলে তথ্য দেন।

★ বিদ্যুৎ সংযোগ চালু করার সর্বোচ্চ চেষ্ট চলছে বলে জানিয়েছেন মহেশখালীর ইউএনও।

★ এদিকে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার আশংকায় বিদ্যুৎ অফিস এলাকায় পুলিশের টহল বাড়ানো হয়েছে বলে জানাগেছে।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন প্রযুক্তিগত কারণে এ সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে, লোকজনকে শান্ত থাকার পরামর্শ দেন তারা।

[ নিউজটি সম্পাদনার পর্যায়ে। ]

No comments

Powered by Blogger.