আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

কালারমার ছড়ায় রুহুল কাদের হত্যা মামলার আসামিদের বাড়িতে হামলা, লুটপাট - মহেশখালীর সব খবর

কালারমার ছড়ায় রুহুল কাদের হত্যা মামলার আসামিদের বাড়িতে হামলা, লুটপাট

কালারমার ছড়া সংবাদদাতা।। সম্প্রতি কালারমার ছড়ায় রাতের অন্ধকারে ফিল্ম স্ট্যাইলে সিএনজি করে একদল দুর্বৃত্তরা এসে রুহুল কাদের নামে এক যুবককে কুপিয়ে ও গুলি করে খুন করেছে। কালারমার ছড়ার ব্যস্ততম বাজারের পূর্ব পাশে ফকিরজোম পাড়া এলাকায় রাত ১০ দিকে এ খুনের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় একাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা করেছে নিহতের পরিবার। পুলিশ মামলাটি তদন্তের পাশাপাশি খুনের সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করতে অভিযান চালাচ্ছে বলে মহেশখালী থানা সূত্র জানিয়েছে। তবে এ ঘটনার পর নিহত ব্যক্তির পক্ষ নিয়ে একদল সন্ত্রাসী এলাকায় ধারাবাহিক ভাবে তান্ডব চালাচ্ছে বলে অভিযোগে প্রকাশ। 

জানা গেছে -আজ রাত ৮টার দিকে একদল সন্ত্রাসী কালারমার ছড়ার ফকিরজোম পাড়ার বিভিন্ন বাড়িতে হামলা, ভাংচূর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটিয়েছে। এ হত্যা মামলার আসামিদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে এ তাণ্ডব চালানো হচ্ছে বলে সূত্রের অভিযোগ। হামলাকারীরা বিভিন্ন আসামির বাড়ির দরোজা ভেঙ্গে বাড়িতে ঢুকে বাড়ির সদস্যদের অত্যচারের পাশাপাশি ব্যপক ভাংচূর ও গুরুত্বপূর্ণ মালামাল লুট করে নিয়ে যাচ্ছে বলেও সূত্রে প্রকাশ। এর আগে ঘটনার পরপরই মামলার প্রধান আসামির বাড়িতে আক্রমণ করে এবং তার বয়স্ক মায়ের উপর হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত জখম করে বলে সূত্রের অভিযোগ। এ অবস্থায় স্থানীয় পুলিশের কার্যকর ভূমি নাই বলেও জানাচ্ছেন অনেকই। 

সূত্রে জানা যায়, ১৮ অক্টোবর রাতে কালারমার ছড়া বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে ফকিরজুম পাড়ায় পূর্ব- শত্রুতার জের ধরে পরিকল্পিত ভাবে সিএনজি থেকে নেমে দা-কিরিচ দিয়ে রুহুল কাদেরকে কুপিয়ে ও গুলি করে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা উদ্ধার করে কালারমার ছড়া উপ-স্বাস্থ্যকেন্দ্র নিয়ে গেলে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় চকরিয়া হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন। পরে দ্রুত বদরখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন। নিহত রুহুল কাদের প্রকাশ রুহুল ওই এলাকার মোহাম্মদ এর পুত্র। তিনি একাধিক মামলার আসামি ও সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক ছিলেন বলে জানা যাচ্ছে। রুহুল যুবলীগের কালারমার ছাড়া ইউনিয়ন শাখার সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আব্বাস এর ভাই।

No comments

Powered by Blogger.