আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

কালারমার ছড়ায় অভিযানের বিষয়ে র‌্যাবের প্রেস বিজ্ঞপ্তি। (আনকাট) - মহেশখালীর সব খবর

কালারমার ছড়ায় অভিযানের বিষয়ে র‌্যাবের প্রেস বিজ্ঞপ্তি। (আনকাট)


 *প্রেস বিজ্ঞপ্তি*


*মহেশখালীর আলোচিত আলাউদ্দিন হত্যা মামলার প্রধান আসামীসহ ০৩ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৫। বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার।*


*১।* র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সবসময় বিভিন্ন ধরনের অপরাধীদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। র‌্যাবের সৃষ্টিকাল থেকে চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, খুনী, বিপুল পরিমাণ অবৈধ অস্ত্র-গোলাবারুদ উদ্ধার, ছিনতাইকারী, অপহরণ ও প্রতারকদের গ্রেফতার করে সাধারণ জনগণের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে সংগঠিত চাঞ্চল্যকর অপরাধে জড়িত অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে  র‌্যাব জনগনের সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। 


*২।* গত ০৫ নভেম্বর ২০২১ খ্রিঃ তারিখ আনুমানিক ২০.৩০ ঘটিকায় কালামারছড়া ইউপির ছামিরাঘোনা কালুর ব্রিজ নামক স্থানে আলাউদ্দিন (২৬) নামক এক আত্মসমর্পণকারী জলদস্যুকে সন্ত্রাসীরা নির্মমভাবে হত্যা করে। উক্ত হত্যাকান্ডের ঘটনায় নিহতের ভাই সুমন উদ্দিন বাদী হয়ে গত ০৬ নভেম্বর ২০২১ খ্রিঃ মহেশখালী থানায় এজাহার নামীয় ১৮ জন আসামীসহ অজ্ঞাতনামা ০৪/০৫ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে, যা মহেশখালী থানার মামলা নং-০৫/৩১৩, ধারা-৩০২/৩৪ পেনাল কোড।


*৩।* এরই ধারাবাহিকতায় উক্ত হত্যাকান্ড ও তৎসংক্রান্ত মামলার ভিত্তিতে র‌্যাব-১৫ ছায়া তদন্ত শুরু করে। তদন্ত চলাকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে ২২ নভেম্বর ২০২১ খ্রিঃ ১৯০০ ঘটিকায় লামা থানাধীন ফাইতং এলাকা হতে *রফিকুল ইসলাম প্রকাশ মামুন (২৮)*, পিতা-মৃত মনছুর আলম প্রকাশ রসু ডাকাত, সাং-ছামিরাঘোনা, কালামারছড়া, থানা-মহেশখালী, জেলা-কক্সবাজার ও তার সহযোগী *মোঃ রিফাত (২৩)*, পিতা-মনিরুল আলম, সাং-চিকনীপাড়া, কালামারছড়া, থানা-মহেশখালী, জেলা-কক্সবাজারদ্বয়কে আটক করতে সক্ষম হয়। আটককৃত *মামুন চাঞ্চল্যকর আলাউদ্দিন হত্যা মামলার ০১ নং আসামী।* আটককৃত আসামী মামুনকে জিজ্ঞাসাবাদে জানায় যে, আলাউদ্দিন হত্যা মামলায় গ্রেফতার এড়াতে সে অপহরণ এর নাটক সাজিয়ে লুকিয়ে ছিল। সে আরো জানায় যে, আলাউদ্দিন হত্যা মামলার ১২ নং আসামী আইয়ুব আলী (৪০), পিতা-মৃত আব্দুল আলী, কক্সবাজার থানাধীন পাহাড়তলী এলাকায় লুুকিয়ে আছে। মামুনের দেওয়া তথ্যমতে অভিযান পরিচালনা করে উক্ত আলাউদ্দিন হত্যা মামলার ১২ নং পলাতক আসামী *আইয়ুব আলী (৪০)*, পিতা-মৃত আব্দুল আলী, সাং-মোহাম্মদ শাহঘোনা, কালামারছড়া, থানা-মহেশখালী, জেলা-কক্সবাজার বর্তমানে দক্ষিণ ডিককুল ঝিলংজা ইউপি কক্সবাজার সদরকে একই তারিখ ২২.৩০ ঘটিকায় কক্সবাজার পাহাড়তলী এলাকা হতে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। 


৪। আলাউদ্দিন হত্যা মামলার ধৃত ০১ নং আসামী মামুন  (২৮) এবং ১২ নং আসামী আইয়ুব আলী (৪০) দ্বয়কে জিজ্ঞাসাবাদ কালে তারা জানায় যে, ডাকাতি ও হত্যার কাজে ব্যবহৃত অস্ত্রশস্ত্র, মহেশখালী থানাধীন কালারমারছড়া ইউপিস্থ নয়াপাড়া সাকিনের মুড়ারকাছা পাহাড়ের মৃত আলকাসের বাগানের পরিত্যক্ত মাটির তৈরি দোচালা টিনের ঘরের পিছনে ঝোপের ভিতর মাটির নিচে

লুকায়িত আছে। তাদের দেওয়া তথ্যমতে, র‌্যাব- ১৫ এর একটি চৌকস আভিযানিক দল অধিনায়ক, র‌্যাব-১৫ এর নেতৃত্বে তাদের লুকায়িত ঘাঁটি থেকে *৪ টি একনলা লম্বা বন্দুক, ১ টি থ্রি-কোয়ার্টার বন্দুক, ৩ টি এলজি, ১ টি বিদেশি পিস্তল, ১ টি ম্যাগাজিন, ২ রাউন্ড তাজা গুলি ও ৫ রাউন্ড তাজা কার্তুজ* উদ্ধারপূবর্ক জব্দ তালিকা মূলে জব্দ করে। 


৫। আসামীদের বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে কক্সবাজার জেলার মহেশখালী থানায় হস্তান্তর কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

No comments

Powered by Blogger.