আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

সাগর তীরে মানববন্ধনে দাঁড়িয়ে আবারও বেড়িবাঁধের দাবি জানালেন মাতারবাড়িবাসী - মহেশখালীর সব খবর

সাগর তীরে মানববন্ধনে দাঁড়িয়ে আবারও বেড়িবাঁধের দাবি জানালেন মাতারবাড়িবাসী


আব্দুর রহমান রিটন।।
মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ি উপকূলের প্রায় আধা কিলোমিটার অরক্ষিত এলাকায় স্থায়ী ও টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের  দাবিতে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্টিত হয়েছে।

২৩ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) দুপুর ১২ টার সময় উপজেলার মাতারবাড়ী সাইরার ডেইল জালিয়া পাড়া গ্রামের বেঁড়িবাধ এলাকায় সাইরার ডেইল ক্ষতিগ্রস্ত জালিয়া পাড়াবাসীর আয়োজনে ঘন্টাব্যাপি এ মানববন্ধন অনুষ্টিত হয়।

মানববন্ধনে মাতারবাড়ি মৎস্য ব্যবসায়ীর সভাপতি মোহাম্মদ মফিজের সভাপতিত্বে সাধারন সম্পাদক জয়নাল আবেদীনের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, স্থানিয় সাবেক মেম্বার হামেদ হোসাইন খোকা, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়জুল কাদের ফয়জু, স্থানীয় ক্ষতিগ্রস্ত ইসমাইল, আব্দুল গফুর, বাদশাহ, মোকতার আহমদ, আজগর বহাদ্দার, নাছির বহাদ্দার এক, নাছির বহাদ্দর দুই, ইলিয়াছ বহাদ্দার, আমিন মাঝি, আমির হামজা, আবুল কাশেম, মোস্তক আহমদ, আব্দু রহিম, সোনা মিয়া, নুর আহমদ বহাদ্দার, নুরুল আমিন মাঝি প্রমুুখ। এছাড়াও শত শত ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের নারী-পুরুষ মানববন্ধনে অংশ নেন।

এসময় বক্তারা বলেন, সাইরার ডেইলের দক্ষিণে পশ্চিমে কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের পাথরের বেড়িঁবাধের পানির ধাক্কা ঘুরে ফিরে এসে সাইরার ডেইল জালিয়া পাড়া এসে লাগায় লোকালয়ে পানি প্রবেশ করছে।

এছাড়া সাইরার ডেইল জালিয়া পাড়া এলাকায় বেড়িঁবাধ নির্মাণ না করায় প্রতিনিয়ত জোয়ারের পানি উঠানামা করছে ফলে জোয়ারের পানিতে ঘরবাড়ি রাস্তাঘাট প্রতি বর্ষা মৌসুমে প্লাবিত হয়ে তলিয়ে যায়।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারীরা বলেন, এছাড়া বিভিন্ন সময় পানি মন্ত্রণালয়ের সচিব ও পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবোর) কর্মকর্তারা সাইরার ডেইল জালিয়া পাড়া অরক্ষিত এলাকা পরির্দশন করে গেলেও যুগ যুগ ধরে সাগরের লোনা পানিতে মাতারবাড়ীর মানুষ ভাসছে। প্রতিবারই এমন পরিস্থিতিতে শুধু আশ্বাসবাণী শোনালেও কার্যত রক্ষা বাঁধ তৈরির কোনো উদ্যোগ কখনও নেওয়া হয়নি।

এছাড়া সরকারের মেগা প্রকল্প তাপ ভিত্তিক কয়লা বিদ্যুৎ,  গভীর সমুদ্রবন্দরের জন্য আমরা জমাজমা দিয়ে দিয়েছে কোন কর্ণপাত না করে। আমাদের বাপ-দাদার সহায় সম্পত্তির উপর সারা দেশ আলোকিত হবে অথচ একটি বেঁড়িবাধ আমাদের স্বপ্ন রয়ে গেল।

অন্তত বর্ষা মৌসুম ঠেকাতে জিও ব্যাগ দিয়ে হলেও অনতিবিলম্বে অরক্ষিত এলাকায় দ্রুত বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবি জানান তারা।

No comments

Powered by Blogger.