ঢাকা: তিনটি গ্রেডের জ্বালানি আমদানি করবে সরকার। বিভিন্ন দেশের সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো এ জন্যে প্রস্তাবনা পাঠিয়েছে। আমদানির সময় তেলের দাম নির্ধারিত হবে।
বুধবার ( আগস্ট ১০) সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
সভা শেষে সিনিয়র সহকারী সচিব মেহেদী হাসান জানান, জ্বালানি খনিজ সম্পদ বিভাগের অধীনে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে জিটুজি প্রক্রিয়ায় জ্বালানি আমদানি করা হবে।
বিভিন্ন দেশের প্রতিষ্ঠান এক্ষেত্রে আবেদন করেছে। এর মধ্যে রয়েছে কুয়েতের কেপিসি, মালয়েশিয়ার পিটিএলসিএল, আরব আমিরাতের ইনক, চায়নার পেট্রো চায়না, ভিয়েতনামের পেট্রোলিমিক্স, ফিলিপাইনের পিনক, চায়নার ইউনিপেক, ইন্দোনেশিয়ার বুমি শিয়াক, ব্রুনাইয়ের পিবি ট্রেডিং, চায়নার ঝেনহুয়া ও থাইল্যান্ডের পিটিটিটি।
তিনটি গ্রেডের মধ্যে ১৩ লাখ ২২ হাজার ১১১ মেট্রিক টন গ্যাস অয়েল, ১ কোটি ৪১ লক্ষ ৮০৪ মেট্রিক টন জেটএ-১ এবং ৬৫ হাজার ৯৮৯ মেট্রিক টন ফার্নেস অয়েল আমদানি করা হবে। তেলের দাম নির্ভর করবে আমদানির সময়ের দামের ওপর।
এছাড়াও সভায় রাশিয়া থেকে ৫৪ কোটি ৫৯ লক্ষ টাকার ৩০ হাজার মে.টন সার (এমওপি) আমদানির প্রস্তাব গৃহীত হয়।
শেয়ার:

মন্তব্য দিন: