মাহবুব রোকন।।  মহেশখালীতে তুচ্ছ বিষয়ের জের ধরে পিতার ছুরিকাঘাতে পুত্র খুন হয়েছে । সন্ধ্যায় ইফতারের সময় বাবা ও ছেলের মধ্যে কথাকাটাকাটির জের ধরে এ ঘটনা ঘটে। মহেশখালী থানা ও হাসপাতাল সূত্রে এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন। এ ঘটনায় মাকে আটক করেছে পুলিশ।

হাসপাতাল, পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে,  ১০ মে শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে মহেশখালী উপজেলার কুতুবজোম ইউনিয়নে ঘটিভাঙ্গার আশ্রয় প্রকল্পের ব্যারাকের একটি সরকারি বাড়িতে বসবাস করে আসছিল স্থানীয় আনছারুল হকের পরিবার। ২ নম্বর ব্যারাকের ২২ নম্বর কক্ষে আনছারুল হকের ৫ সদস্যদের পরিবারে ছোট ছেলে ছিল সিজান মনি (৮)। শুক্রবার ইফতার সামগ্রী তৈরি করতেছিলেন বাড়ির কর্তা আনছার । তার সাথে ইফতার করতে বসেন তার তিন শিশু পুত্র । এসময় ইফতার খাওয়ার জন্য হট্টগোল করেন শিশু সন্তানগণ। এক পর্যায়ে বড় ছেলে জিদানকে লক্ষ্য করে হাতে থাকা ছুরা ছুড়ে মারেন আনছার। ভয়ে বড় ছেলে পালিয়ে গেলে তার জায়গা থাকা তার ছোট ছেলে সিজান মনি (৮) চুরির আঘাতে বুকের বাম পাশে লেগে গুরুতর আহত হয়। এ সময় তার অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়। দ্রুত শিশুটিকে মহেশখালী হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। রাত ১০টার দিকে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে হাসপাতালেই শিশুটির মৃত্যু হয়। হাসপাতালের আবাসিক অফিসার ডাঃ মাহফুজুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেন। ঘটনার পর থেকে ঘাতক পিতা পলাতক রয়েছে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে শিশুর মা রোজিনা বেগমকে আটক করেছে।

মহেশখালী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইমাম হোসেন ঘটিভাঙ্গার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। পুলিশ হত্যার কাজে ব্যবহৃত ছোরাটি উদ্ধার করেছে। শিশুর মরদেহটির ছুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি কারার পর ময়না তদন্তের জন্য সদরে প্রেরণ করেছে বলে পুলিশ জানায়। প্রসঙ্গতঃ স্ত্রী ও ৩ ছেলে ১ মেয়ে নিয়ে আনছারুল হকের পরিবার।

শেয়ার:

মন্তব্য দিন:

0 comments so far,add yours