আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

মহেশখালীর শাপলাপুরে পানবরজে লাল পতাকা, উত্তেজনা - মহেশখালীর সব খবর

⬤ আমাদের নতুন ওয়েবসাইটে স্বাগতম। ⬤ আমাদের ওয়েবসাইট www.moheshkhalirsobkhabor.com ⬤ ফেসবুক ফেইজ www.facebook.com/m.sobkhabor ⬤ ইউটিউব চ্যানেল www.YouTube.com/Sobkhabor24x7 ⬤ ফেসবুক গ্রুপ www.facebook.com/groups/m.sobkhabor ⬤

মহেশখালীর শাপলাপুরে পানবরজে লাল পতাকা, উত্তেজনা


রকিয়ত উল্লাহ।।
চট্টগ্রাম উপকূলীয় বন বিভাগের আওতাধীন মহেশখালীর শাপলাপুর বিট রেঞ্জের জেএমঘাট নয়াপাড়ায়  অসহায় দরিদ্র গিয়াস উদ্দিন, জসিম উদ্দিন ও নেজাম উদ্দিনের পানের বরজ কথিত উচ্ছেদ অভিযানে নেমেছে  মহেশখালী রেঞ্জ। কোন প্রকার নোটিশ বা কথাবার্তা ছাড়াই টানানো হয়েছে লাল পতাকা। এতে স্থানীয় চাষিদের মধ্যে বেশ ক্ষুব্ধতা ও হতাশা বিরাজ করছে।

জানা যায় -গত ৪ সেপ্টেম্বর বিকাল ৩টার দিকে কোনো প্রকার নোটিশ ছাড়াই তাদের একমাত্র সম্বল ও বহু বছর ধরে চাষাবাদ করে আসা জমিতে লাল পতাকা বসিয়ে দিয়ে স্থানীয় চাষিদেরকে এ জমি থেকে সরে যেতে বলেছেন বন বিভাগ। বন বিভাগ কর্তৃক নার্সারি করার জন্য এ জমি তাদের নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে বলেও জানাগেছে।  

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী জসিম উদ্দিন জানান -‘আমার বাপ-দাদার আমল থেকে এই জায়গায় চাষাবাদ করে আসছি। যা আমাদের একমাত্র আয়-রোজগার করার পথ। যাতে আমরা লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে পানের বরজ দিয়েছি। এখন কোন কথাবার্তা আর নোটিশ ছাড়াই লাল পতাকা দিয়ে আমাদের পান বরজ উচ্ছেদ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। এবিষয়ে আমরা স্থানীয় চেয়ারম্যান ও এমপির হস্তক্ষেপ কামনা করি।’

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি মেম্বার আব্দু সালাম জানান -তারা খুবই অসহায় ও দরিদ্র।  এ জমি ছাড়া তাদের আর কোন জায়গা নেই। নার্সারি করার জন্য অহরহ খালি জায়গা পড়ে আছে উল্লেখ করে তা নিয়ে চিন্তা ভাবনা করার অনুরোধ জানান তিনি।

এ বিষয়ে শাপলাপুরের বিট কর্মকর্তা রাজিব ইব্রাহীম কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন -প্রতি বছরে মতো এবারও চারা রোপণ করার জন্য যাতায়াত আর পানি সুবিধার ও রাস্তার পাশে হওয়ায়  এই জায়গায় নার্সারি করার জন্য নির্বাচন করা হয়েছে। 

মহেশখালী উপজেলা রেঞ্জ কর্মকর্তা অভিজিৎ কুমার বড়ুয়া বলেন - এসব বন বিভাগরই সরকারি জমি, নার্সারি করার জন্য ওই জায়গাটি নির্ধারণ করা হয়েছে। আমরা ১লক্ষ চারা গাছের জন্য যতটুকু জায়গা দরকার শুধু তাই নিবো। 


R-RU/E-MR

No comments

Powered by Blogger.