আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

মহেশখালীতে বিশ্ব হাত ধোয়া দিবসের কর্মসূচিতে ইউএনও মাহফুজ - মহেশখালীর সব খবর

মহেশখালীতে বিশ্ব হাত ধোয়া দিবসের কর্মসূচিতে ইউএনও মাহফুজ

হাত ধোয়ার চর্চা গড়ে তোলার মাধ্যমে আমরা করোনা থেকে মুক্ত থাকতে পারি


স্টাফ রিপোর্টার।।
যাপিত জীবনে নানা কারণে হাত ধোয়াটা অত্যাবশ্যকীয় বিষয়। দেহকে সার্বিক ভাবে সুস্থ রাখার জন্য হাত ধোয়ার বিকল্প নাই। তাই আমাদেরকে অতিগুরুত্ব দিয়ে হাত ধোয়ার চর্চা গড়ে তোলতে হবে। গতকাল মহেশখালীতে বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস ও জাতীয় স্যানিটেশন মাস উপলক্ষে উপজেলা ওয়াটসন কমিটির সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহফুজুর রহমান এ কথা বলেন। তিনি আরও বলেন করোনা মহামারির এইকালে বিশেষজ্ঞরা মানুষকে বার বার হাত ধোয়ার প্রতি বিশেষ গুরুত্ব ‍দিয়ে যাচ্ছেন, স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্তে এ বিশেষজ্ঞমতকে গুরুত্ব দিয়ে হাত ধোয়ার অভ্যাস বাড়াতে হবে। একই সাথে সার্বিক ভাবে স্যানিটেশন বিধি মনে জীবন চর্চা করতে হবে। 


দুপুরে উপজেলা সম্মেলন কক্ষে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর -মহেশখালীর উদ্যোগে ‘উন্নত স্যানিটেশন নিশ্চিত করি -করোনা ভাইরাস মুক্ত জীবন গড়ি’ শীর্ষক এ সভা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর মহেশখালীর উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ রমিজ উদ্দিন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহেশখালী প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাশেদ ও উপজেলা শিক্ষা অফিসার আবু নোমান মোহাম্মদ আব্দুল্লাহসহ অন্যরা। 

প্রসঙ্গতঃ ১৫ অক্টোবর- ‘বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস’। প্রতি বছর আজকের এই দিনে বিশ্বব্যাপী দিবসটি পালন করা হয়। সাধারণ মানুষকে সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার মাধ্যমে রোগের বিস্তার রোধ করার বিষয়ে সচেতনতা তৈরি করার উদ্দেশ্যে এ দিবসটি পালিত হয়ে থাকে। দিবসটি বিশ্বব্যাপী জনসচেতনতা তৈরি ও উদ্বুদ্ধকরণের জন্য চালানো একটি প্রচারণামূলক দিবস। সুইডেনের স্টোকহোমে ২০০৮ সালের ১৫ অক্টোবর বিশ্ব হাত ধোয়া অংশীদার (GHP) বিশ্বব্যাপী আঞ্চলিক ও স্থানীয় পর্যায়ে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে সর্বপ্রথম এ দিবসটি উদযাপন করে। পরে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে তারিখটি প্রতি বছর পালন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বিশ্ব করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার দিবসটি আলাদা গুরুত্ব পেয়েছে।   

No comments

Powered by Blogger.