-->
শাপলাপুরে পাহাড় কেটে বসতি, হুমকির মুখে পরিবেশ

শাপলাপুরে পাহাড় কেটে বসতি, হুমকির মুখে পরিবেশ


এ.এম হোবাইব সজীব।।
মহেশখালীর শাপলাপুর ইউনিয়নে পাহাড় কেটে বসতি নিমার্ণের ধুম পড়লেও নীরব ভূমিকা পালন করছে সংশ্লিষ্টরা। দালাল সিন্ডিকেট ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে হাতে রেখে প্রভাবশালী মহল বনভূমি দখল করছে বলে অভিযোগ রয়েছে। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছে বন বিভাগ। 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার শাপলাপুর জেমঘাট বাজার সংলগ্ন এলাকার  ২ টি স্পটে  বনবিভাগের জায়গা দখল করে পাহাড় কেটে গড়ে উঠছে ঘর-বাড়ি। একই কায়দায় দিনেশপুর ও কায়দাবাদ এলাকায় চলছে পাহাড় কেটে বিভিন্ন আকৃতির কাঁচা ও আঁধাপাকা ঘর তৈরি। কোনো প্রকার আইন কানুন না মেনে একের পর এক পাহাড় কেটে ঘর-বাড়ি গড়ে ওঠায় জলবায়ু পরিবর্তন জনিত হুমকিতে চরম আশঙ্কায় রয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। 

স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, ‘বন বিভাগের যোগসাজশে যে হারে পাহাড় কেটে ঘর-বাড়ি তৈরি হচ্ছে তাতে বনশূন্য হয়ে পড়ছে পাহাড়গুলো। প্রতিনিয়ত ঘর-বাড়ি নির্মাণের ফলে যেকোনো সময় বড় ধরনের বিপদ দেখা দিতে পারে। এছাড়া জলবায়ুতে মারাত্মক পরিবর্তনের আশংকা তৈরি করছে।

এদিকে,  বন বিভাগের সঙ্গে দেনদরবার করে পাহাড় কেটে ঘর-বাড়ি নির্মাণের অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের। 

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে শাপলাপুর বিট অফিসার রাজিব ইব্রাহিম বলেন -‘সংরক্ষিত বন রক্ষায় আমরা নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছি। যেখানে বন বিভাগের জায়গা দখল ও পাহাড় কেটে ঘর তৈরি করা হচ্ছে সেখানে খবর নিয়ে কাজ বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে।

শিরোনাম ছিলো.. "শাপলাপুরে পাহাড় কেটে বসতি, হুমকির মুখে পরিবেশ"

Post a Comment

Iklan Atas Artikel

Iklan Tengah Artikel 1

Iklan Tengah Artikel 2

Iklan Bawah Artikel