আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

শাপলাপুরে পাহাড় কেটে বসতি, হুমকির মুখে পরিবেশ - মহেশখালীর সব খবর

⬤ আমাদের নতুন ওয়েবসাইটে স্বাগতম। ⬤ আমাদের ওয়েবসাইট www.moheshkhalirsobkhabor.com ⬤ ফেসবুক ফেইজ www.facebook.com/m.sobkhabor ⬤ ইউটিউব চ্যানেল www.YouTube.com/Sobkhabor24x7 ⬤ ফেসবুক গ্রুপ www.facebook.com/groups/m.sobkhabor ⬤

শাপলাপুরে পাহাড় কেটে বসতি, হুমকির মুখে পরিবেশ


এ.এম হোবাইব সজীব।।
মহেশখালীর শাপলাপুর ইউনিয়নে পাহাড় কেটে বসতি নিমার্ণের ধুম পড়লেও নীরব ভূমিকা পালন করছে সংশ্লিষ্টরা। দালাল সিন্ডিকেট ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে হাতে রেখে প্রভাবশালী মহল বনভূমি দখল করছে বলে অভিযোগ রয়েছে। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছে বন বিভাগ। 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার শাপলাপুর জেমঘাট বাজার সংলগ্ন এলাকার  ২ টি স্পটে  বনবিভাগের জায়গা দখল করে পাহাড় কেটে গড়ে উঠছে ঘর-বাড়ি। একই কায়দায় দিনেশপুর ও কায়দাবাদ এলাকায় চলছে পাহাড় কেটে বিভিন্ন আকৃতির কাঁচা ও আঁধাপাকা ঘর তৈরি। কোনো প্রকার আইন কানুন না মেনে একের পর এক পাহাড় কেটে ঘর-বাড়ি গড়ে ওঠায় জলবায়ু পরিবর্তন জনিত হুমকিতে চরম আশঙ্কায় রয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। 

স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, ‘বন বিভাগের যোগসাজশে যে হারে পাহাড় কেটে ঘর-বাড়ি তৈরি হচ্ছে তাতে বনশূন্য হয়ে পড়ছে পাহাড়গুলো। প্রতিনিয়ত ঘর-বাড়ি নির্মাণের ফলে যেকোনো সময় বড় ধরনের বিপদ দেখা দিতে পারে। এছাড়া জলবায়ুতে মারাত্মক পরিবর্তনের আশংকা তৈরি করছে।

এদিকে,  বন বিভাগের সঙ্গে দেনদরবার করে পাহাড় কেটে ঘর-বাড়ি নির্মাণের অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের। 

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে শাপলাপুর বিট অফিসার রাজিব ইব্রাহিম বলেন -‘সংরক্ষিত বন রক্ষায় আমরা নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছি। যেখানে বন বিভাগের জায়গা দখল ও পাহাড় কেটে ঘর তৈরি করা হচ্ছে সেখানে খবর নিয়ে কাজ বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে।

No comments

Powered by Blogger.