-->
“প্রধানমন্ত্রী মাতারবাড়ির মানুষের খোঁজ-খবর নিয়মিত রাখেন”

“প্রধানমন্ত্রী মাতারবাড়ির মানুষের খোঁজ-খবর নিয়মিত রাখেন”


অসীম দাশ ।।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এমপি বলেছেন, “প্রধানমন্ত্রী মাতারবাড়ির মানুষের খোঁজ-খবর নিয়মিত রাখেন। সেখানে এই মাতারবাড়ির মানুষ তাদের ক্ষতিপূরণ পাবে না-এটা বরদাস্ত করা যায় না। অবশ্যই সবাইকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।”

সোমবার মহেশখালীর মাতারবাড়ি গভীর সমুন্দ্রবন্দর এলাকা পরিদর্শন শেষে মাতারবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে এক জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

আ.লীগ নেতা হানিফ বলেন, “ আজকে প্রকল্প এলাকায় এক সমাবেশে আমি বলেছি, মাতারবাড়ি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে যেসব কর্মকর্তা-কর্মচারী কাজ করবে, তাদের মধ্যে টেকনিক্যাল পার্সন ছাড়া বাকি সব পদে যেনো এখানকার ছেলে-মেয়েদের চাকরী দেয়া হয়। তারা আমাকে কথা দিয়েছেন, তারা সেই উদ্যোগ নিবেন। এছাড়া স্থানীয়দের প্রশিক্ষণ দিতে এখানে একটা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র খোলারও উদ্যোগ নেওয়া হয়েছ।” 

কেন্দ্রীয় আ.লীগের এই নেতা আরও বলেন, “এখানে আমাদের অনেক ভাইয়েরা হয়তো জমি হারা হয়েছেন। কিন্তু আমাদের এসব ভাইয়েরা যাতে তাদের যথাযথ ক্ষতিপূরণ পেয়ে অন্য জায়গায় জমি কিনতে পারে প্রধানমন্ত্রী সেই নির্দেশনা দিয়েছেন, সেই ঘোষণা দিয়েছেন। ইতিমধ্যে অনেকে ক্ষতিপূরণ পেয়েছেনও। ”

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এড. সিরাজুল মোস্তফা, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এড. ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান, মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, কক্সবাজার সদর-রামু আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল, চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য জাফর আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রেজাউল করিম।

শিরোনাম ছিলো.. "“প্রধানমন্ত্রী মাতারবাড়ির মানুষের খোঁজ-খবর নিয়মিত রাখেন”"

Post a Comment

Iklan Atas Artikel

Iklan Tengah Artikel 1

Iklan Tengah Artikel 2

Iklan Bawah Artikel