-->
হোয়ানকের সেই বৃদ্ধার পাশে উপজেলা প্রশাসন

হোয়ানকের সেই বৃদ্ধার পাশে উপজেলা প্রশাসন


নিজস্ব প্রতিবেদক।।

এক ছেলে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, আরেক ছেলে চট্টগ্রামে বেসরকারি চাকরীজীবী। অথচ তাঁদের কেউই বৃদ্ধা মায়ের খবর রাখেন না। ফলে একপ্রকার অসহায় ও মানবেতর জীবনযাপন করছিলেন শতোর্ধ বৃদ্ধা নিরবালা।

উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের পুইছড়া গ্রামের মৃত কবিশন চন্দ্রের স্ত্রী তিনি। তাঁর তিন ছেলে, দুই মেয়ে থাকলেও একমাত্র বড়ছেলের টানাপোড়নের সংসারেই কোনরকম ঠাঁয় নিরবালার। কক্সবাজারের জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যম টিটিএন, মহেশখালীর সব খবর, সিপ্লাস টিভি, সকালের সময়, আমাদের কক্সবাজারসহ বিভিন্ন পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর শতায়ু এই অসহায় মায়ের পাশে দাঁড়িয়েছে মহেশখালী উপজেলা প্রশাসন। আজ সোমবার বিকালে মহেশখালী উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মো. মাহফুজুর রহমান ওই বৃদ্ধার কাছে প্রশাসনের সহায়তা পাঠিয়েছেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহফুজুর রহমান মহেশখালীর সব খবর’কে বলেন, “ গণ-মাধ্যমে তার খবরটি প্রকাশ হলে আমার নজরে আসে। খুব জরাজীর্ণ এক মাঠির ঘরে থাকেন। আমরা চেষ্টা করবো আগামীতে তাকে একটি ঘর করে দেওয়ার।”

শিরোনাম ছিলো.. "হোয়ানকের সেই বৃদ্ধার পাশে উপজেলা প্রশাসন"

Post a Comment

Iklan Atas Artikel

Iklan Tengah Artikel 1

Iklan Tengah Artikel 2

Iklan Bawah Artikel