আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

মহেশখালীর শাপলাপুরে অবৈধভাবে ইউরিয়া সার বিক্রির অভিযোগ - মহেশখালীর সব খবর

মহেশখালীর শাপলাপুরে অবৈধভাবে ইউরিয়া সার বিক্রির অভিযোগ


নিজস্ব প্রতিবেদক।।
মহেশখালী উপজেলার শাপলাপুর ইউনিয়নের বিএডিসি'র সার ডিলারের বিরুদ্ধে নিম্মমানের সারসহ অবৈধভাবে ইউরিয়া সার বিক্রির অভিযোগ উঠেছে।

সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি)  থেকে শাপলাপুর ইউনিয়নে ডিলার হিসাবে নিয়োগ নেন স্থানীয় আবু তাহের।  কৃষি মন্ত্রনালয়ের প্রদত্ত বরাদ্দ অনুযায়ী ডিলার পর্যায়ে নন ইউনিয়া সার (টিএসপি, এমওপি ও ডিএপি) সরবরাহ করার নিয়ম থাকলেও অবৈধভাবে বেশি মুনফার আশায় অবৈধভাবে ইউরিয়া সার বিক্রি করে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। সাধারণ কৃষকের কাছে  খুচরা ও গ্রামের দোকানে ইউরিয়া সার (তাদের) সাব ডিলারদের মাধ্যমে কৃষকের কাছে বিক্রি করে যাচ্ছে। এমনকি গুদামে ও ঘরে  ইউরিয়া সার মজুদ রাখার অভিযোগ  উঠে।

এতে কৃষকদের ফসলি জমির ধানের চারা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে প্রায় সময়। বিভিন্ন চোরাই পথে আসা সার সিন্ডিকেটের মাধ্যমে ছড়িয়ে দিচ্ছে তিনি। রাতে অন্ধকারে ইউরিয়া, নন ইউরিয়া ও সরকার নিষিদ্ধ নিম্মমানের সার সরবরাহ করে আসছে বলেও অভিযোগ উঠেছে।

বি.সি.আই.সি সার ডিলারের কয়েকজন ব্যবসায়ী অভিযোগ করে বলেন, সরকারি ভাবে আমরা অনুমোদন নিয়ে ইউরিয়া সার বিক্রি করলে ও অবৈধভাবে ঐ ডিলার নিম্নমানের ইউরিয়া সার বিক্রি করে আসছে দীর্ঘ দিন ধরে। তা আমরা কৃষি অফিসকে বারবার অবগত করলেও তারা পরিদর্শনে এসে ঘুরে যায়।

শাপলাপুরের ষাইটমারার বি.সি.আই.সি সার ডিলার হুমায়ুন কবির জানান, কয়েকদিন আগে একজন কৃষক চোরাই পথে ইউরিয়া সার আনলে তা আমি ধরে ফেলি, এরকম চোরাই বা অবৈধভাবে যে বা যারা ইউরিয়া সার বিক্রি করতেছে তদন্ত পূর্বক তাদেরকে আইনের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি।

এবিষয়ে বিএডিসি ডিলার আবু তাহেররের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি অস্বীকার করে  বলেন, আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেতেছে।  আমি ইউরিয়া সার বিক্রি করিনা। অনুমোদন ছাড়া এই সার বিক্রি আইনগত অপরাধ।  

অপরদিকে সম্প্রতি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মুবিনুল ইসলাম শাপলাপুর সার ডিলার আবু তাহেরের দোকানে বিভিন্ন অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে গেলে অদৃশ্য কারণে সারের গোদামে তিনি তল্লাশি করেনি। এতে সাদা সার ডিলারদের মাঝে ক্ষোভের ধাঁনা বেধেছে।

এবিষয়ে মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহাফুজুর রহমান জানান, অনুমোদন ছাড়া  কেউ ইউরিয়া সার বিক্রি করতে পারে না। এরকম অভিযোগে বড় মহেশখালীতে অভিযান চালিয়ে জরিমানা করা হয়েছিল এবং  কোথাও অভিযোগ পেলে আবারও অভিযান পরিচালনা করা হবে।

No comments

Powered by Blogger.