আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

হামলাকারীদের গ্রেফতার দাবিতে মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেনের সংবাদ সম্মেলন - মহেশখালীর সব খবর

হামলাকারীদের গ্রেফতার দাবিতে মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেনের সংবাদ সম্মেলন


বার্তা পরিবেশক।।
মহেশখালীর সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন এক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেছেন তার উপর হামলাকারী মহেশখালীর পৌর মেয়র মকসুদ মিয়াসহ আমজাদ হোসেনের করা মামলার অন্যান্য আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। এ অবস্থায় তার পরিবার বেশ নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছে। তিনি দ্রুত মেয়র মকসুদ মিয়াসহ অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন। একই সাথে তিনি মেয়রের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তোলে রহস্যজনক কারণে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করছে না এবং মহেশখালীর আইনশৃঙ্খলার চরম অবনতি হয়েছে বলে দাবি করেন। ১৫ ডিসেম্বর মহেশখালী পৌর সদরের ইলা কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি এ সব দাবি করেন। 

কক্সবাজারের মহেশখালীতে সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেনকে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় করা মামলার আসামি মহেশখালী পৌরসভার মেয়র মকছুদ মিয়াকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার, পদচ্যুত, গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যরা।  

১৫ ডিসেম্বর বুধবার বেলা ১২টার সময় মহেশখালী ইলা কমিউনিটি সেন্টারের হল রুমে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।  এতে মহেশখালী উপজেলায় মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন এবং পৌর মেয়র মকসুদ মিয়াসহ মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন হত্যা চেষ্টার সকল আসামিকে গ্রেফতার করতে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য প্রদানকালে মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন জানান, মহেশখালীর যুদ্ধাপরাধী মামলার বাদী ও সাক্ষী হওয়ায় রাজকার হাসেম সিকদারের পূত্র মহেশখালী পৌরসভার মেয়র মকছুদ মিয়ার নেতৃত্বে গত ২৪ নভেম্বর হত্যার উদ্দেশ্য কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। এ ঘটনায় মহেশখালী থানায় মামলা হলেও আসামিরা প্রকাশ্য ঘোরাফেরা করছে। কিন্তু রহস্যজনক ভাবে পুলিশ আসামি গ্রেফতার করছে না। এছাড়াও হামলার আগেও নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করলেও প্রশাসন আমাকে নিরাপত্তা দিতে ব্যার্থ হয়েছে। তাই মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের পক্ষ থেকে মেয়র মকছুদ মিয়াকে রাজাকার পূত্র দাবি করে মেয়র মকছুদ মিয়াসহ সবাইকে গ্রেফতারের দাবি জানান। 

No comments

Powered by Blogger.