আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

নির্বাচনে কাজ না করায় ব্যাক্তিগত সহকারীকে মাতারবাড়ির সাবেক চেয়ারম্যান মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহ কর্তৃক মিথ্যা মামলা দেওয়ার অভিযোগ - মহেশখালীর সব খবর

নির্বাচনে কাজ না করায় ব্যাক্তিগত সহকারীকে মাতারবাড়ির সাবেক চেয়ারম্যান মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহ কর্তৃক মিথ্যা মামলা দেওয়ার অভিযোগ


বার্তা পরিবেশক।। মহেশখালী উপজেলায় মাতারবাড়ি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহকে মারধর ও টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগে মামলা হয়েছে। এঘটনায় প্রধান আসামি আক্তার হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।  


এতে  মাতারবাড়ির সাইরার ডেইল এলাকার মৃত সামশুল আলমের  পুত্র আকতার হোসেন (৫০)কে প্রধান আসামী করে একই এলাকার ছকি আলমের পুত্র আয়ুব খান(৫৩) ও উত্তর রাজঘাট এলাকার মৃত বদি উদ্দিনের পুত্র শফি আলম(৪৩) সহ অজ্ঞাত আরও ২/৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়।

কিন্তু অভিযোগ উঠেছে গত নির্বাচনে মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহর পক্ষে কাজ না করায় তার ব্যক্তিগত সহকারী শফি আলমের উপর ক্ষোভে মিথ্যা ভাবে মামলা আসামি করা হয়েছে। এনিয়ে মাতারবাড়িতে শুরু হয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। শফি আলাম জানান,মাতারবাড়ি কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্প এলাকায় কে বা কারা চেয়ারম্যানকে মারধর বা লাঞ্ছিত করছে আমি জানি না। ঐ দিন আমি ঐ এলাকায়ও যায়নি। গত নির্বাচনে চেয়ারম্যানের পক্ষে কাজ না করায় আমাকে মামলায় জড়ানো হয়েছে।আমি উক্ত ঘটনা সুষ্ঠু ভাবে প্রশাসনের  নিকট তদন্তের দাবি জানাচ্ছি।

এবিষয়ে মাতারবাড়ির চেয়ারম্যান মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহ জানান, আমাকে পরিকল্পিত ভাবে হামলা করা হয়েছে। কেন বা কারা হামলা করেছে, জানতে চাইলে সরাসরি বলবে বলে এডিয়ে চলেন।

এবিষয়ে মহেশখালী থানা ওসি আব্দুল হাই জানান, উক্ত ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। টাকার লেনদেন নিয়ে ঘটনা হয়েছে শুনেছি। তদন্ত করে ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

No comments

Powered by Blogger.