হারুনুর রশিদ/সৈয়দ মোজতবা আলী ।। কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডঃ সিরাজুল মোস্তফা বলেছেন, মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনে আশেক উল্লাহ রফিক’র মত একজন পরিচ্ছন্ন নেতাকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দিয়ে এই দুই উপজেলার ৫ লাখ মানুষকে ধন্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিগত ৫ বছরে মহেশখালী ও কুতুবদিয়ায় যে অভুতপুর্ব উন্নয়ন হয়েছে তা দৃষ্ঠান্ত হয়ে থাকবে। তাই এলাকার উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে ৩০ ডিসেম্বর নৌকায় ভোট দিয়ে বিজয় নিশ্চিত করতে হবে। তিনি মঙ্গলবার সকাল ১০টায় মহেশখালী বঙ্গবন্ধু সরকারি মহিলা কলেজ প্রাঙ্গনে মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত বিজয় দিবসের আলোচনা সভা ও প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এ কথা বলেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার পাশা চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান বলেন, এখন মহেশখালীর আলোয় আলোখিত হবে বাংলাদেশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মহেশখালী ও কুতুবদিয়া উপজেলাকে ঘিরে যে উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহন করেছেন তা বাস্তবায়ন হলে এই দুইটি উপজেলা সিঙ্গাপুরে পরিণত হবে। ব্যাপক কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে। তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন আর কোন দলাদলি নয়, নৌকা প্রতীক শেখ হাসিনার। তাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেন, ইতোমধ্যে লবণ আমদানি বন্ধ করে লবণের ন্যায্যমুল্য নিশ্চিত করেছি। মহেশখালীতে উৎপাদিত মিষ্টিপান বিদেশে রপ্তানী করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ায় মিষ্টিপানের ন্যায্যমুল্য নিশ্চিত হয়েছে। কয়লা বিদ্যুৎসহ বিভিন্ন মেগা প্রকল্পের জন্য অধিগ্রহনকৃত জমির ক্ষতিপুরণ বৃদ্ধি করতে যথাযত ব্যবস্থা নেওয়ায় ক্ষতিপুরণের টাকা বৃদ্ধি করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কখনো দেশের জনগনের ক্ষতি হয় এমন কাজ করেন না। তাই তিনিই এখন দেশের খেটে-খাওয়া মানুষের এক মাত্র আশ্রয় স্থল। তিনি আরো বলেন, দেশ এখন দুইভাগে বিভক্ত। এক পক্ষ দেশেকে লুটপাটের স্বর্গ রাজ্য বানাতে চায় আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের উন্নয়ন তরান্বিত করতে চান। ইতোমধ্যে মহেশখালীতে বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন জোট সরকারের সময়ে শুধু খাম্বা দেওয়া হয়েছিল বিদ্যুৎ দিতে পারে নি। তাই নৌকার বিজয় নিশ্চিত করুন আগামিতে আরো উন্নয়ন হবে।
শেয়ার:

মন্তব্য দিন:

0 comments so far,add yours