আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানালেন বড় মহেশখালীর ইউপি সদস্য জিল্লুর রহমান মিন্টু - মহেশখালীর সব খবর

⬤ আমাদের নতুন ওয়েবসাইটে স্বাগতম। ⬤ আমাদের ওয়েবসাইট www.moheshkhalirsobkhabor.com ⬤ ফেসবুক ফেইজ www.facebook.com/m.sobkhabor ⬤ ইউটিউব চ্যানেল www.YouTube.com/Sobkhabor24x7 ⬤ ফেসবুক গ্রুপ www.facebook.com/groups/m.sobkhabor ⬤

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানালেন বড় মহেশখালীর ইউপি সদস্য জিল্লুর রহমান মিন্টু

‘বড় মহেশখালীর ইউপি সদস্য জিল্লুর রহমান মিন্টু বাহিনীর হাতে প্রবাসীর পরিবার লাঞ্ছিত শিরোনামে’ বিভিন্ন ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন বড় মহেশখালী ৯নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জিল্লুর রহমান মিন্টু প্রকাশ মিন্টু মেম্বার ৷

লিখিত এক প্রতিবাদ বার্তার মাধ্যমে তিনি জানান, তার নির্বাচনী এলাকা বড় মহেশখালীর পশ্চিম ফকিরাঘোনার জনগণ বরাবরই শান্তিকামী ও ধার্মিক প্রকৃতির লোক হয় ৷ এলাকার যে কোন অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধে তিনি এলাকাবাসীর সহযোগিতায় প্রতিরোধ করার চেষ্টা করেন ৷ মাদককে সামাজিক ভাবে প্রতিরোধের অংশ হিসেবে এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৯জুলাই এলাকার চিহ্নিত ইয়াবা কারবারি, পুলিশের খাতায় ইয়াবা মামলার আসামী কথিত সাংবাদিক নামধারী আরিফের ইয়াবা সেবনের আস্তানা এলাকাবাসীরা আমার উপস্থিতে গুড়িয়ে দেয় ৷ যার ফলে ইয়াবা কারবারি আরিফের পরিবারের লোকজন আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিশোধের নেশায় আমাকে জড়িয়ে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম, ও সোশাল মিডিয়ায় মানহানিকর সংবাদ পরিবেশন করতে থাকে ৷ এতেও তারা ক্ষান্ত হতে না পেরে আমাকে ফাঁসাতে তালিকাভুক্ত ইয়াবা কারবারি আরিফের মা জায়তুন নাহার প্রকাশ কালুনী মহেশখালী থানায় অভিযোগ দায়ের করে ৷

এলাকার সচেতন সমাজ ও সংবাদকর্মী ভাইদের প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি, আপনারা এলাকায় খোঁজ নিলে এর সত্যতা জানতে পারবেন ৷ আরিফ নামে ছেলেটির বিরুদ্ধে মহেশখালী থানায় ইয়াবা সংক্রান্ত মামলা রয়েছে, যার মামলা নং ১০/১২৫ , উক্ত মামলার সে দুই নম্বর আসামি ৷ তার বিভিন্ন কুকর্ম ঢাকতে নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে প্রকৃত পরিশ্রমী সংবাদকর্মীদেরও প্রশ্নের সম্মুখীন করছে ৷
এমনকি আরিফ নামের ছেলেটির সাথে বিভিন্ন মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত দাগী অপরাধীদের সাথে উঠাবসা রয়েছে ৷ বিগত ৭জুলাই মহেশখালী থানা পুলিশ আরিফের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা উদ্ধার করে ৷ ঘটনাস্থল হতে থানা পুলিশ ইয়াবাসহ আটকও করে ৷ ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায়  মহেশখালী থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন মামলায় আরিফকে দুই নম্বর আসামি উল্লেখ করে মামলা রুজু হয় ৷

বড় মহেশখালী ইউনিয়নের জনসাধারণ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কথাকে সম্মান জানিয়ে মাদক নির্মূলে সোচ্চার ও একতাবদ্ধ রয়েছে ৷ “এলাকাবাসীর সহযোগিতায় এলাকায় শান্তিশৃঙ্খলা ফিরাতে, মাদক নির্মূলে জিরো টলারেন্স ফর্মুলা অবলম্বন করাটাই কি আমার অপরাধ” ৷

আমি প্রকাশিত এসব সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং এলাকার এই ইয়াবা কারবারিদের বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানাচ্ছি। এহেন অসত্য সংবাদে কাউকে বিব্রত না হতে জোর অনুরোধ জানাচ্ছি ৷ আমার বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন মানহানিকর সংবাদ প্রচারে সহযোগীতাকারীদের বিরুদ্ধে মানহানি মামলার প্রস্তুতি গ্রহণ করছি ৷

প্রতিবাদকারীঃ
জিল্লুর রহমান মিন্টু
ইউপি সদস্য, ৯ নম্বর ওয়ার্ড
বড় মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদ।

No comments

Powered by Blogger.