আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

মহেশখালীর সাবেক এসিল্যান্ড নোমান হোসেন প্রিন্স এডিসি হলেন :: - মহেশখালীর সব খবর

⬤ আমাদের নতুন ওয়েবসাইটে স্বাগতম। ⬤ আমাদের ওয়েবসাইট www.moheshkhalirsobkhabor.com ⬤ ফেসবুক ফেইজ www.facebook.com/m.sobkhabor ⬤ ইউটিউব চ্যানেল www.YouTube.com/Sobkhabor24x7 ⬤ ফেসবুক গ্রুপ www.facebook.com/groups/m.sobkhabor ⬤

মহেশখালীর সাবেক এসিল্যান্ড নোমান হোসেন প্রিন্স এডিসি হলেন ::



স্টাফ রিপোর্টার।। 
মহেশখালী উপজেলার সাবেক সহকারী কমিশনার (ভূমি) নোমান হোসেন প্রিন্স এডিসি হিসেবে পদোন্নতি পেয়েছেন ৷ তিনি নোয়াখালী জেলায় এডিসি হিসেবে নতুন নিয়োগ পেয়ে সেখানে দায়িত্ব পালন করেন ৷ ১৫জুলাই রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে জারিকৃত এক প্রজ্ঞাপন সূত্রে এই তথ্য জানা যায় ৷

সূত্র জানায় -পদোন্নতির আগ পর্যন্ত তিনি চট্টগ্রাম জেলার কর্ণফুলী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন ৷ উল্লেখ্য -নোমান হোসেন ২০১৪ সালে মহেশখালী উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন ৷ অল্পদিনেই তিনি চৌকস মেধাবী অফিসার হিসেবে সর্বমহলে পরিচিতি লাভ করেছিলেন ৷
মহেশখালীঃ প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা সাংবাদিক ইকবাল সোবহান চৌধুরী মহেশখালী আসলে তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানাচ্ছেন তৎকালীন এসিল্যান্ড নোমান হোসেন প্রিন্স, মহেশখালীর সব খবর এর সম্পাদক মাহবুব রোকনসহ অন্যরা। [ ফাইল ছবি। ]

মহেশখালীতে গৃহীত সরকারের নানামুখী উন্নয়ন প্রকল্পের কাজের অগ্রগতিতে দক্ষ ভূমিকা রাখেন ৷ পাশাপাশি উপজেলা ভূমি অফিসকে দুর্নীতিমুক্ত ঘোষণা করে সর্বমহলে প্রশংসাও লাভ করেছিলেন ৷ ২০১৬ সালে মহেশখালী হতে বদলী হয়ে চলে যান তিনি। ২০১৮ সালে পদোন্নতি লাভ করে কক্সবাজার সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন ৷ কক্সবাজারে দায়িত্ব পালনকালে নানা ভালো ভূমিকার জন্য তিনি বেশ প্রশংসিত হন।

আধুনিক কক্সবাজার বিনির্মাণে তিনি অনবদ্য ভূমিকা রাখেন বলে মনে করেন অনেকই ৷ বিশেষ করে পর্যটন এলাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি, ছিনতাইকারী ও সন্ত্রাস দমনে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন ৷ তাছাড়া প্রভাবশালী ভূমিদস্যুদের অবৈধ দখলে চলে যাওয়া সরকারী গুরুত্বপূর্ণ ভূমি উদ্ধারের তার প্রশংসনীয় ভূমিকার করা সারাদেশে আলোচনার ঝড় তোলে।
মহেশখালীঃ ভূমি সংক্রান্ত কাজে মহেশখালীর প্রত্যন্ত এলাকায় গিয়ে কাজ করছেন তৎকালীন এসিল্যান্ড নোমান হোসেন প্রিন্স। অন্য ছবিটি মহেশখালীতে ত্রাণের মাংস বিতরণ করার সময় তোলা। [ ফাইল ছবি। ]

এ/এন/এম/এইচ

No comments

Powered by Blogger.