আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

বোট মালিক-চালকদের এক হাত নিলেন এমপি আশেক - মহেশখালীর সব খবর

⬤ আমাদের নতুন ওয়েবসাইটে স্বাগতম। ⬤ আমাদের ওয়েবসাইট www.moheshkhalirsobkhabor.com ⬤ ফেসবুক ফেইজ www.facebook.com/m.sobkhabor ⬤ ইউটিউব চ্যানেল www.YouTube.com/Sobkhabor24x7 ⬤ ফেসবুক গ্রুপ www.facebook.com/groups/m.sobkhabor ⬤

বোট মালিক-চালকদের এক হাত নিলেন এমপি আশেক


অসীম দাশ।।

মহেশখালী-কক্সবাজার নৌ পথের অব্যবস্থাপনা ও বোট চালকদের দায়িত্বশীল আচরণ নিয়ে ওঠা নানা সমালোচনার মধ্যেই এবার বোট মালিক- চালকদের এক হাত নিয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব¦ আশেক উল্লাহ রফিক। গতকাল উপজেলা প্রশাসনের উদ্যেগে বোট চালকদের দেওয়া ২০০ লাইফ জ্যাকেট বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি বোট মালিক-চালকদের উদ্দ্যেশে বলেন, “ একটি দুর্ঘটনার কিন্তু আইনগত প্রতিকার পাওয়ার অধিকার মানুষের আছে। যে ফিশিং বোটটা আপনাকে ধাক্কা দিলো আপনার অবশ্যই সেই ফিশিং বোটটা চিহ্নিত করা দরকার ছিলো; একজন মাঝি হিসেবে। উচিত ছিলো ঘাটে মেসেজ পাঠিয়ে উদ্ধারকারী কোন বোট আনানো।”

“এই যে মাস্ক; যেটা এখন সবসময় পড়তে হচ্ছে। কই? আপনারা তো জীবনে কখনো এক বাস্ক মাস্ক কিনেন নাই। আপনারা বোট মালিক সমিতি তো চাইলে এক হাজার মাস্ক কিনে প্রতিটি বোটে দিতে পারতেন।”

“আপনারা যারাই এই ব্যবসার সাথে জড়িত, আপনাদেরই আপনাদের ব্যবসাকে নিরাপদ করতে হবে; নিরাপত্তা দেওয়ার মাধ্যমে; সেবা দেওয়ার মাধ্যমে। ঝড়ের মধ্যে আমরা ভিজে, রৌদের মধ্যে পুড়ে আমরা পারাপার হই। এই সিস্টেম আপনাদের রিপ্লেস করতে হবে। হয়তো ভাড়া বাড়তে পারে। কিন্তু যাতায়তটা যাতে আরামদায়ক ও নিরাপদ হয়।-এই ব্যবস্থা আপনারা যারা মালিক সমিতি আছেন, তাদেরই নিশ্চিত করতে হবে।”- যোগ করেন তিনি।

‘একটি কাস্টমার ঘরের লক্ষি’-এ কথা মনে করিয়ে দিয়ে তিনি আরও বলেন, “ একটি দোকানে দেখবেন, মালিক যখন দোকান খুলে তখন সে সেটিকে ধুয়ে মুছেই খোলে এবং সে তার কাস্টমারের প্রতি একটি বিশেষ লক্ষ্য রাখে। এটি হলো যেকোন সেবার একটি প্রাথমিক ধাপ। যেসব বোটের ফিটনেস নেই, মাঝপথে গিয়ে প্লাগের সমস্যা হয়; চলাচলের উপযোগি নয়; রিজার্ভ তেল থাকে না;- এসব পাল্টাতে হবে।”

বোটে হেল্পার না রাখার বিষয়টি তুলে তিনি মালিকদের প্রতি প্রশ্ন রাখেন,“ এই যে বোটে হেল্পার থাকে না। আগামী দিনে ড্রাইভার আসবে কোথায় থেকে? আজকে যদি আপনারা হেল্পার তৈরি না করেন, তাহলে আগামী দিনে বোট গুলো চালাবে কে?

মৃত্য কারই কাম্য নয়, দুর্ঘটনা যেকোন সময়ই ঘটতে পারে উল্লেখ করে, ইউএনও মো: মাহফুজুর রহমানের প্রতি তিনি বলেন,“ ঘাটে ইনস্ট্যন্ট কোন উদ্ধারকারী সংস্থা রাখা যায় কিনা দেখেন। যাতে যেকোন দুর্ঘটনায় তাৎক্ষণিক উদ্ধারকাজ চালানো যায়।

গতকাল লাইফ জ্যাকেট বিতরণের ঐ অনুষ্ঠানে ইউএনও মো: মাহফুজুর রহমানের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মো: শরীফ বাদশা, পৌর মেয়র আলহাজ¦মকছুদ মিয়া। 

No comments

Powered by Blogger.