-->
কালারমার ছড়ায় অগ্নিদুর্গতদের দেখতে গেলেন পূজা উদযাপন পরিষদ নেতৃবৃন্দ

কালারমার ছড়ায় অগ্নিদুর্গতদের দেখতে গেলেন পূজা উদযাপন পরিষদ নেতৃবৃন্দ


অসীম দাশ।।
উপজেলার কালারমার ছড়া ইউনিয়নের হিন্দু পল্লিতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের দেখতে গিয়েছেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ মহেশখালী উপজেলার নেতৃবৃন্দরা। আজ বিকাল ৪টার দিকে নেতৃবৃন্দরা ঘটনাস্থলে পৌছে অগ্নিদুর্গত গ্রাম পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্থদের খোজঁ-খবর নেন। এসময় নেতৃবৃন্দরা প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করে সহায়তারও আশ্বাস দেন।

পরিদর্শনকালে জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সিনিয়র সদস্য শান্তি লাল নন্দী বলেন, “এই ঘটনা অত্যন্ত হৃদয়বিদারক। আমি খুবই মর্মাহত। যাদের বাড়ি-ঘর ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে তাদের সার্বিক সহযোগীতা করার জন্য ইতিমধ্যে প্রসাসনের সাথে কথা বলেছি আমরা।”

মহেশখালী উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রণব কুমার দে মহেশখালীর সব খবর’কে বলেন,“

কালামার ছড়া শীল পাড়ায় আজ দুপুরে সাতটি ঘর ও একটি সরস্বতী মন্দির সম্পূর্ণরূপে পুড়ে গেছে। জমির দলিলপত্র, স্বর্ণালঙ্কার ,টাকা-পয়সাসহ ঘরের আসবাবপত্র পুড়ে গেছে। পরনের একটি মাত্র কাপড় ছাড়া তাদের আর কিছুই নেই । সাতটি ঘরের মধ্যে একজন প্রতিবন্ধী ব্যক্তির ঘরও আছে। বিত্তবানদের এগিয়ে আসার জন্য আমি বিনয়ের সহিত অনুরোধ জানাচ্ছি।”

পরিদর্শনকালে পূজা উদযাপন পরিষদের  রাজেশ শর্মা, যীশু চৌধূরী, বিপিন দে, মাস্টার তপন দে,লক্ষী চরণ দে, নিপ্পন পাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলো।

উল্লেখ্য:আজ বেলা সাড়ে ১২টার দিকে কালারমার ছড়ার হিন্দু পল্লীর কাজল শীল এর বাড়ির রান্নার চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে মুহূর্তে তা ছড়িয়ে পড়ে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই পুড়ে যায় গ্রামটির বেশ কয়েকটি বাড়ি-ঘর। স্থানীয় বাসিন্দারা আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালিয়েও ব্যর্থ হয়।

শিরোনাম ছিলো.. "কালারমার ছড়ায় অগ্নিদুর্গতদের দেখতে গেলেন পূজা উদযাপন পরিষদ নেতৃবৃন্দ"

Post a Comment

Iklan Atas Artikel

Iklan Tengah Artikel 1

Iklan Tengah Artikel 2

Iklan Bawah Artikel