আমরা মহেশখালীর কথা বলি..

উদ্বোধন হলো মহেশখালী দ্বীপের প্রথম সেই শিশুপার্ক - মহেশখালীর সব খবর

উদ্বোধন হলো মহেশখালী দ্বীপের প্রথম সেই শিশুপার্ক


ফুয়াদ মোহাম্মদ সবুজ।।
উদ্বোধন করা হয়েছে মহেশখালী দ্বীপের ভূমিদস্যুর ছোবল থেকে উদ্ধার করা সেই সরকারি জায়গায় নির্মিত শেখ রাসেল শিশুপার্কটি। আজ (২২ জুলাই) বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় নতুন এ বিনোদন কেন্দ্রটি উদ্বোধনের মাধ্যমে সকলের জন্য  উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

কক্সবাজার-২ আসনের সাংসদ আলহাজ আশেক উল্লাহ রফিক প্রধান অতিথি থেকে নতুন এ বিনোদন কেন্দ্রটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন, মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাহফুজুর রহমান, মহেশখালী পৌরসভার মেয়র আলহাজ মকছুদ মিয়া ও ছোট মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহেদ বিন আলীসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিরা। পরে উপজেলার অন্যান্য ইউনিয়ন থেকে আসা বিনোদনপ্রিয়দের পদচারণায় মুখরিত হয় সে শিশুপার্কটি।

কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের লম্বাঘোনা বাজার সংলগ্ন নৈসর্গিক ও নান্দনিক পরিবেশে ৪০ শতক জায়গার উপর স্থাপিত হওয়া এ বিনোদন কেন্দ্রে আপাতত দেখা যাবে, হাতি, জিরাফ, হরিণ, বাজপাখিসহ বিভিন্ন বন্যপ্রানীর প্রতিকৃতি ও শিশুদের জন্য তৈরি করা বিভিন্ন খেলনা রাইড। প্রতিদিন সকাল-সন্ধ্যা এ পার্কটি শিশু কিশোরসহ সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। ফলে অনায়াসে মুক্তমনে বিনোদন নিতে পারবে বিভিন্ন বয়সী শিশু কিশোর ও বিনোদনপ্রিয়রা। এ বিনোদন পার্কে ঢুকতে কাউকে এন্ট্রি ফি দিতে হবে না।

মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (শিল্পপ্রেমি) মাহফুজুর রহমানের উদ্যোগে মহেশখালী দ্বীপের ইতিহাসে এই প্রথম নতুন ও প্রথম বিনোদন কেন্দ্র পেলো দ্বীপবাসী। অনেকটা ইতিহাসের স্বারক হিসেবে মহেশখালীর প্রকৃতি থেকে হারিয়ে যাওয়া বিভিন্ন প্রাণ-প্রতিকৃতি দিয়ে সাজানো এ বিনোদন কেন্দ্রটি নিয়ে মহেশখালী জনপদের সর্বমহল ইতিবাচক মনোভাব পোষণ করেছেন। সকলে ইউএনও মাহফুজুর রহমানকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

No comments

Powered by Blogger.