আবুল বশর পারভেজ।।

কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার আদিনাথ মন্দিরে শিবচতুর্দশী পূজা ও মেলা ১৩ই ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে মূল পূজাঁ-১৮ইং  ১৪ ফেব্রুয়ারী বুধবার।আদিনাথ
পূজাঁ শান্তিপূর্নভাবে উদযাপনের লক্ষে মহেশখালী উপজেলা প্রশাসন ৭ ফেব্রুয়ারী বিকাল ৩টায় এক প্রস্তুুতি মূলক সভার আয়োজন করে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আবুল কালামের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত হয়। সভায় এবারের পূজাঁ উদযাপনে মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আবুল কালামকে সভাপতি, শান্তিলাল নন্দী কে সদস্য সচিব ও জিসু চৌধুরীকে কোষাধ্যক্ষ করে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট আদিনাথ পূজা উদযাপনে কার্যকরী কমিটি গঠন করা হয়।প্রস্তুতি মূলক সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, মহেশখালী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হাসান মারুফ, মহেশখালী পৌর মেয়র আলহাজ্ব মকছুদ মিয়া, অফিসার ইনচার্জ প্রদীপ কুমার দাশ, জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি এম আজিজুর রহমান বি এ,জেলা পরিষদ সদস্য আলহাজ্ব আনোয়ার পাশা চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এড. আবু তালেব ,সাবেকস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শামশুল আলম,ছোট মহেশখালীর চেয়ারম্যান জিহাদ বীন আলী,মহেশখালী পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ব্রজ গোপাল ঘোষ, আদিনাথ সংস্কার কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রণব কুমার দে, অধ্যাপক আশীষ কুমার চক্রবর্তী, পরিমল কান্তি দে, সুব্রত দত্ত, প্রিয়তোষ দে, মিন্টু দে, অসীম দে, নৃপেন্দ্র কান্তি দে, সুজিত কুমার দে, উদ্ভব কুমাপর দে, দিলীপ কুমার দাশ, বাশঁীঁ রাম দে, দুলাল কান্তি দে, ইউপি সদস্য মোঃ নুরুল আমিন, রাম হরি দাশ, ইউপি সদস্য জসিম উদ্দিন, ইউপি সদস্য মোঃ জাকারিয়া, আব্দুল করিম, বিপিন কুমার দে, মনোরঞ্জন দে, অনিল পাল,প্রনব দে, সুকুমার চক্রবর্তী, মানিক কুমার দে, সনজিত কুমার পাল,যীশু চৌধুরী, তপন কান্তি দে, ইউপি সদস্য  বকুল রাণী দে, ইউপি সদস্য চিত্তরঞ্জন দে, সোমেশ চন্দ্র দে, শ্রী হরি দে, নেপাল চন্দ্র দে, শশাংক মোহন দে, রতন কান্তি দে, অধীর চন্দ্র দে, পথিক চন্দ্র দে, রতন কুমার দে, মৃদুল দে, সাধন চন্দ্র দে, উজ্জল কুমার ধর, যাত্রা মোহন দে, অজিত কুমার দে, তপন দে, অসীম কতুমার দে, রাজু মোহন দে , প্রদিপ কুমার রুদ্র, নির্মল কান্তি রুদ্র, স্বপন কুমারর দে, সুধির চন্দ্র পাল, শম্ভু চরণ দে, শান্তি পদ দে,  দিলপি দে, সুজন দে, সূর্য্য দে, সুজিত কুমার দে, সজল দে, কাজল দে, প্রবিন ঘোষ, সুকুমার চক্রবর্তী, নয়ন দে ,  শিপন দে, বাদল দে, মহেশম চন্দ্র দে,  বিমল তালুকদার, সুমন দাশ, ভ্রমর দে, সমীর দে, শ্রীমন্ত দে, তপন কুমার দে, স্পন দে, আনন্দ দে, কাউন্সিলর সনডিজত চক্রর্বী, প্রীতি কনা শর্মা প্রমুখ ।প্রতিবছরের মতো এ বছরেও দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কয়েক হাজার তীর্থযাত্রী মেলায় আসবেন বলে আয়োজকেরা জানিয়েছেন। তবে অন্যান্য বছরে মেলায় বিনোদনমূলক নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হলেও এ বছর তেমন কোনো অনুষ্ঠান আয়োজনের অনুমতি দেয়নি স্থানীয় প্রশাসন।আদিনাথ সংস্কার কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রণব কুমার দে বলেন, গত বছর এ মেলায় ৫০ হাজার তীর্থযাত্রী এসেছিলেন। মেলার আয়োজকেরা জানান, আদিনাথ মন্দিরে শিব দর্শন করার জন্য এবার তীর্থযাত্রীরা সরাসরি গাড়িযোগে চকরিয়া বদরখালী হয়ে মহেশখালীর আদিনাথে আসতে পারবেন।এবারে মেলায় কোন ধরনের জুয়া, মদ, এবং অসামাজিক কার্যকলাপ হতে দ্ওেয়া হবেনা বলে কঠোর হুশিয়ারী উচ্চারন করেন ¯থানীয় প্রশাসন । নিরাপতÍা ব্যাবস্তা জোরদার করার লক্ষ্যে সিভিলে সার্বক্ষনিক প্রস্তুত থাকবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।
শেয়ার:

মন্তব্য দিন: