আবুল বশর পারভেজ


মহেশখালীর দরিদ্র মেধাবী ছাত্র তানভীর মোহাম্মদ সাগর সদ্য ২০১৮সালে প্রকাশিত এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পাওয়ার পর অর্থ অভাবে ঢাকার সরকারী বিজ্ঞান কলেজে ভর্তির চান্স পেয়ে উচ্চ মাধ্যমিক এ ভর্তি হতে পারছে না।

অাগামী স্বপ্ন যেন তার চোখেঁ মেঘে ঘন ঘটা অন্ধকার।ডাক নাম সাগর সে মহেশখালী হাসপাতাল সড়ক দিয়ে জব্বার খলিফার বাড়ীর উত্তর পার্শ্বে নতুন পালপাড়া গ্রামের  বজলুর রহমান ও মাতা শাহিনুরের ২য় সন্তান।

জানাগেছে, সাগরের বাবা একজন পেশাদার বাবুর্চি ছিলেন। হঠাৎ একদিন বাড়ী থেকে বাহির হয়ে অদ্যবধি অার বাড়ী ফিরে অাসেনি বাবা বজলুর রহমান।

এক মেয়ে পারভিন ও  ছোট ছেলে সাগরকে নিয়ে   অভাব অনটনের সংসারে হাল ধরেন  মা শাহিনুর। শাহিনুর যে বাসাটিতে থাকেন তার মাসিক ভাড়া ১২শত টাকা।ভাড়া বাসায় থেকে ভূমিহীন শাহিনুর অন্যর বাসা বাড়ীতে ঝি এর কাজ করে সংসার চালায়। কখনো বাসাবাড়ী কখনো বিয়ে বাড়ী কখনো বিয়ের ক্লাবে অার কখনো মুরগীর ফার্মে দিনমজুর কাজ করে।কোন মতে মেয়ে ফারভিন কে স্থানীয় চর পাড়ায় বিয়েদেয় মা শাহিনুর।

সন্তানের ভবিষ্যৎ অালোকিত করতে কায়িক শ্রমদিয়ে অর্জিত অর্থ দিয়ে সাগরের মা শাহিনুর পড়া লেখার খরচ চালায়।মেধাবী সাগর পিএসসি ও জে.এস.সি পরীক্ষায় ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি এবং এসএসসিতে  জিপিএ ৫ অর্জন করে।ভাল ফলাফল অর্জন করে উচ্চ শিক্ষার ভর্তি যুদ্ধে অনলাইনে ঢাকার ৪টি ও চট্টগ্রামের ৩টি কলেজে অাবেদন করে। অাবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার সরকারী বিজ্ঞান কলেজে ভর্তির চান্স পেয়েছে। কোন মতে,অনলাইনে ভর্তি নিশ্চয়তার জন্য মোবাইল ফিঃ প্রদান করলেও ভবিষ্যৎ কলেজে ভর্তির টাকা ও বই, বাসস্থান বা কলেজ হোস্টেল সীট পাওয়া সাগরের কাছে কষ্টের পাহাড়ে পরিনত হয়েছে।

রাত দিন নির্ঘূম কি করে ঢাকা শহরের কলেজে গিয়ে মায়ের স্বপ্ন ও নিজের ইচ্ছা পূরণ করবেন। মহেশখালী উপজেলার প্রাচীনতম বিদ্যাপীঠ মহেশখালী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে জিপিএ ৫ পেয়েছে। তার এই অভাবনীয় সাফল্যে স্কুল কর্তৃপক্ষ ও এলাকাবাসী গর্বিত।

সাগরের মা শাহিনুর বেগম জানায়, সারা দিন অন্যর ঘরে কাজ করে যা ঝুটে তা দিয়ে সংসারের খরচ চালাতে পারছিনা। অামার ছেলে যে ভাল সফলতা অর্জন করেছে তা অামার শরীরের সকল কষ্ট মূছন হয়েছে।তবে অামার ছেলেকে উচ্চ শিক্ষায় ভর্তি করাতে পারছিনা অর্থ অভাবে। মা-র স্বপ্ন পূরণে  দারিদ্রতাকে জয় করে সাগর উচ্চ শিক্ষা অর্জন করে দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করতে চায়। তবে দারিদ্র’র কষাঘাতে তার উচ্চ শিক্ষার খরচ চালাতে না পারায় শঙ্কিত পরিবার। তার স্বপ্ন পূরণে একমাত্র বাধা আর্থিক অস্বচ্ছলতা।

মেধাবী সাগর মা বলেন  কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্টানের সহযোগিতা পেলে আমার ছেলের লেখাপড়া চালানো সম্ভব হবে। নইলে বন্ধ হয়ে যাবে। আমার ছেলের এই সাফল্য অর্জন অর্থাভাবে বন্ধ হউক তা অামি চাইনা। 

সাগরের  মা অারো জানান,ছেলেটা আমার খুব মেধাবী। অনেক ইচ্ছা অাছে ছেলেটাকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে। হে অাল্লাহ অামার স্বপ্ন তুমি পূরণ কর। কোন ব্যক্তি প্রতিষ্টান সহায়তার হাত বাড়াতে সকলের প্রতি অাহবান জানাই।

যোগাযোগঃ তানভীর মোহাম্মদ সাগর, নতুন পালপাড়া, মহেশখালী পৌরসভা, মোবাইলঃ ০১৮৫১৪১২১৬০

শেয়ার:

মন্তব্য দিন:

0 comments so far,add yours